দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
শিরোনাম: কে এই মামুনুল হক?       কলাপাড়ায় কিছুতেই থামছে না আন্ধারমানিক নদীর দখল দৌরাত্ম       গাজীপুরে পুলিশ দম্পত্তিকে মারধোর       ব্যবসায়ীদের সুযোগ-সুবিধা আরো বাড়ানো দরকার : অর্থমন্ত্রী       আনারস ফলে রয়েছে অনেক গুণাগুণ       ‘বিএনপির মিথ্যাচারের থলের বিড়াল বেরিয়েছে’       পত্র-পত্রিকায় আমার বক্তব্য বিকৃত করে ছাপা হয়েছে : মির্জা আব্বাস       আন্তঃব্যাংক লেনদেন চালু       একদিনে রেকর্ড ১০২ মৃত্যু       রাজশাহীতে বের হবার করণ দেখাতে না পারলে ফিরতে হচ্ছে উল্টো পথে      
যমেক হাসপাতালের ঘটনা
মায়ের পেট থেকে নবজাতকের অর্ধেক ছিড়ে আনলেন আয়া!
আশিকুর রহমান শিমুল :
Published : Saturday, 27 February, 2021 at 10:58 PM, Update: 27.02.2021 11:07:45 PM, Count : 1749

মায়ের পেট থেকে নবজাতকের অর্ধেক ছিড়ে আনলেন আয়া!যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডাক্তার ও সেবিকা ছাড়াই এক গর্ভবতীর সন্তান ডেলিভারির চেষ্টা করেন এক আয়া। আর এতেই বিপত্তি ঘটেছে। নবজাতককে টেনে দু’খন্ড করেছেন ওই আয়া। গলা থেকে মাথা পর্যন্ত রয়েছে মায়ের পেটের ভিতর। বাকি অংশ বের করতে পারেন আয়া মোমেনা। এ ঘটনায় ওই প্রসূতির লোকজনের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। যদিও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, নবজাতকটি মৃত ছিল। পঁচন ধরেছিল তার শরীরে। যে কারণে আয়া নবজাতকের পা ধরে টান দিতেই মাথা ছিড়ে মায়ের পেটের ভিতর থেকে গেছে। 

হাসপাতাল সূত্র জানায়, শুক্রবার রাতে শার্শা উপজেলার বেনাপোল গাজীপুর গ্রামের আবুল হোসেনের স্ত্রী পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা আন্না বেগম (২৮) টয়লেটে পড়ে যান। পরে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে মধ্যরাতে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। গাইনি বিভাগের ডাক্তার আন্না বেগমকে দেখে জানান,‘রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাকে অপারেশন করতে হবে।

ওই নবজাতকের পিতা আবুল হোসেন জানান, শনিবার সন্ধ্যায় স্ত্রীর পেট থেকে নবজাতকের পা বেরিয়ে আসে।  প্রথমে ওয়ার্ডের সেবিকারা রোগী দেখে নরমাল ডেলিভারি হবে বলে জানান। এর আগে দুপুরে ডাক্তার তানজিলা এসে চেকআপ করে বলেন নরমাল ডেলিভারি হবে। কিছু সময় পর ওই ওয়ার্ডের সেবিকা সিজার করা লাগবে বলে জানান। সিজারের ওষুধ কেনার জন্য একটি স্লিপ ধরিয়ে দিয়ে এক ব্যক্তিকে দেন স্বামী আবুল হোসেনের সাথে। কিন্তু তিনি ওইব্যক্তির সাথে না গিয়ে অন্য ফার্মেসি থেকে ওষুধ কিনে আনেন। এর কিছুক্ষণ পরে সেবিকারা এসে তাকে জানান, নবজাতকটি বেঁচে নেই। স্ত্রীর অবস্থাও ভালো না। বেডেই আয়া মোমেনা তার স্ত্রীর নরমাল ডেলিভারি করাতে গিয়ে নবজাতকের গলা থেকে ছিড়ে ফেলেন বলে অভিযোগ করেন আবুল হোসেন। তখন তিনি সেবিকাদের ডাকতে গিয়ে দেখেন সবাই পালিয়েছেন। স্ত্রী ব্যথায় ছটফট করলেও কোনো ডাক্তার কিংবা সেবিকা খুঁজে পাওয়া যায়নি বলে অভিযোগ স্বামী আবুল হোসেনের। অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়ার আগেই বকশিসের আশায় আয়া মোমেনা তার স্ত্রীকে ডেলিভারির চেষ্টা করেন। 

ওয়ার্ডে একাধিক রোগীর অভিযোগ,আয়াদের বকশিস বাণিজ্যের কাছে সকলে জিম্মি। যে কাজ ডাক্তার বা সেবিকাদের করার কথা সেই কাজ আগ বাড়িয়ে আয়ারা করে থাকেন। 
হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আরিফ আহমেদ জানান, তত্ত্বাবধায়কের নির্দেশে ঘটনা জানার পর ওয়ার্ডে গিয়েছিলেন। ওই মায়ের গর্ভে আগে থেকেই সন্তান মৃত অবস্থায় ছিল। সন্তানটির বয়স হয়েছিল ২০ সপ্তাহ। ওজন ছিল মাত্র তিনশ’ গ্রাম। মৃত্যুর পর মায়ের পেটের মধ্যে পঁচন শুরু হয়। যে কারণে আয়া পা ধরে টান দিতেই নবজাতকের মাথা মায়ের পেটের ভিতর থেকে গেছে। 





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft