শিক্ষা বার্তা
শিরোনাম: যশোরে কোয়ারেন্টাইনে নারীর মৃত্যু       বৃহস্পতিবার জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ       হেফাজত তাণ্ডব: দায় স্বীকার করলেন হারুন       তিন ক্লাবের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু       শুক্রবার ঈদ       রাস্ট্রিক সোসাইটির উদ্যোগে উপহার সামগ্রী বিতরণ       মণিরামপুরে ঈদ বস্ত্র ও নগদ অর্থ বিতরণ        তাড়াহুড়োয় ফেরিতে প্রাণ গেল ৬ জনের       কোয়ারেন্টাইনে ঈদ করবেন আড়াই সহস্রাধিক মানুষ       আজ চাঁদ উঠলে কাল ঈদ       
মেডিকেলে পড়ার সুযোগ পেলেন রাখাইন ম্যাচোখেন
হুমায়ুন কবির কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি:
Published : Thursday, 15 April, 2021 at 4:04 PM, Count : 125
মেডিকেলে পড়ার সুযোগ পেলেন রাখাইন ম্যাচোখেনপটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধুলাসার ইউনিয়নের সমুদ্র উপকুল ঘেঁষা বৌলতলীপাড়া গ্রামে কৃষক উচোঠান মেয়ে আদিবাসী রাখাইন ম্যাচোখেন এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় সুযোগ পেলেন। বৌলপাড়া পাশের গ্রাম -খেচাও পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাথমিকের শিক্ষা শেষ করে বরিশাল নগরীর ব্যাপ্টিস্ট মিশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসি ও বরিশাল সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করে এবার মেডিকেলের ভর্তি যুদ্ধে জয়ী হন তিনি। সদ্য ঘোষিত মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফলে ম্যাচোখেন কিশোরগঞ্জ জেলার শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজে সুযোগ পেয়েছেন বলে জানা গেছে।
অদম্য রাখাইন ছাত্রী ম্যাচোখেন বলেন, বৌলতলী পাড়া গ্রাম থেকে অনেক কষ্ট করে হেঁটে ৩ কিলোমিটার রাস্তা  পায়ে পাড়ি দিয়ে খেচাও পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাতায়াত করেছে লেকা পড়ার জন্য। রোদে পুড়ে, বৃষ্টিতে ভিজে নিয়মিত উপস্থিতি ছিল তার স্কুলে। বর্ষার ৪ মাস স্কুলেই যেতে পাড়তে না। তার বাবা রাখাইন কৃষক উচোঠান, মা গৃহিনী খেওয়ান। তার শিক্ষাক্ষেত্রে অনুপ্রেরনা যুগিয়েছেন দাদা থানচাচিং তালুকদার। যখন স্কুলে যেতে পাড়তেন না তখন দাদা ঘরে বসে পড়াতেন। যেকারনে প্রাথমিক সমাপনীতে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পেয়ে আতœবিশ্বাস বাড়ে তার।
এরপর ৬ষ্ঠ শ্রেনীতে বরিশাল নগরীর বেপ্টিস্ট মিশন বালিকা বিদ্যালয়ে ভর্তি হন। বাবা-মা ছেড়ে হোস্টেলে থেকে লেখাপড়া করতে হতো অনেক সংগ্রাম করে। রাতে ঘুমাতে পাড়তেন না। ২০১৮ সালে এসএসসিতে জিপিএ-৫ বেপ্টিস্ট মিশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে। ২০২১ সালে মডেল স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন। স্কুল শিক্ষক এবং কলেজ শিক্ষকদের সহযোগিতা অকপটে স্বীকার করেন ম্যাচোখেন। তিনি বলেন, তার ইচ্ছে অনাগ্রসর রাখাইন জনগোষ্ঠীর চিকিৎসা সেবা দিবেন। কেননা  রাখাইনরা বাংলায় ততোটা দক্ষ নন।
বরিশাল সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজ এর রসায়ন বিভাগের প্রভাষক শিখা রানী বলেন, নিয়মিত ক্লাসে আসতো ম্যাচোখেন। ভীষন মেধাবী ছিল সে। অনগ্রসার জনগোষ্ঠী থেকে এমন একটি ছাত্রীর মেডিকেলে সুযোগ পাওয়া চ্যালেঞ্জের। ম্যাচোখেন চিকিৎসা সেবায় গরীবের পাশে থাকবেন বলে মনে করেন তিনি।
বাবা রাখাইন কৃষক উচোঠান বলেন, সংসারের অভাব অনটন সত্বেও লেখাপড়ার ব্যয়ভার মেটাতে এতো টুকো কস্ট বুঝতে দিতেন না কন্যা ম্যাচোখেন কে। তাই তার মা অবসরে টেইলারিং এর কাজ করে এবং তিনি নিজে সবজি চাষ করে আয় বাড়াতেন। ছোট বেলা থেকেই লেখাপড়ায় অদম্য ছিল তার কন্যা। মেডিকেলে ভর্তি সুযোগ পাওয়ায় তিনি তার কন্যাকে কলাপাড়া অনগ্রসর রাখাইন জনগোষ্ঠীর সেবায় নিয়োজিত করার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।
এ বিষয় রাখাইন উন্নয়ন কর্মী প্রকৌশলী ম্যাথুজ বলেন, রাখাইন সম্প্রদায় থেকে দ্বিতীয়বারের মতো মেডিকেল ভর্তিও সুযোগ পেয়েছে । এর আগে তালতলী উপজেলার আগাঠাকুরপাড়ায় ১৯৭২সালে প্রথমবারের মতো একজন আদিবাসী মেডিকেলে ভর্তি হয়ে ডাক্তার হন। এর ৪৯বছর পরে আদিবাসী রাখাইন ছাত্রী ম্যাচোখেন এবার মেডিকেলে ভর্তির যোগ্যতা অর্জন করেছে। এটি আদিবাসী রাখাইন সম্প্রদায়সহ উপকূলবাসীর জন্য একটি গর্বের বিষয়। এজন্য ম্যাচোখেন তিনি শিক্ষকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। সেই সাথে তিনি সকল সম্প্রদায়ের কাছে দোয়া ও আশীর্বাদ কামনা করছেন।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft