আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
শিরোনাম: খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে আরও ৭ মৃত্যু       বাংলাদেশ চায় রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনে জাতিসংঘ স্পষ্ট রোডম্যাপ তৈরি করুক       মারা গেলেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আলতাফ হোসেন       কখনও পরমাণু যুদ্ধে জড়ানো যাবে না : যৌথ বিবৃতিতে পুতিন ও বাইডেন       বৃষ্টি আরও দুদিন হতে পারে       রাজধানীতে দেশীয় অস্ত্রসহ কিশোর গ্যাংয়ের ৮ সদস্য গ্রেফতার       চট্টগ্রামে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১৮ মামলার আসামি গুলিবিদ্ধ        রাজশাহী মেডিকেলে আরও ১০ জনের মৃত্যু       চট্টগ্রামে করোনায় আরও দুইজনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৬৯       জয়পুরহাটে করোনায় ৭৪ জন আক্রান্ত       
পরীক্কের শেষ কনে ?
Published : Thursday, 6 May, 2021 at 8:41 PM, Count : 152
পরীক্কের শেষ কনে ?রুযা সংযমের মাস হলিও সংযম নেই বাজারের জিনুসির দামে। রুযার আগে সবাই কত মিটে মিটে কইলো কিন্তুক রুযা পড়লিই যেই লাউ সেই কদু। কামার যা গড়ে মনে মনে গড়ে সিরাম দশা।  রুযার কয়দিন আগের শুক্কুরবারেত্তে গরুর গোস্ত বিক্কির শুরু কইরেছে ৫৫০ টাকা কেজি।  ছল্লিবল্লি কইরে এই দর ঈদির সুমায় ৬০০ করার ধান্দায় ওৎ পাইতে রইয়েচে গোস্ত ব্যবসায়ীরা। ছালে ছুতোয় যদি একবার দর উটোতি পারে তালি তারে টাইনে নামানোর সাধ্যি কারো আছে বিলে মনে হয় না। খাসির গোস্ত ৭৫০ ত্তে শুরু কইরে ৮০০ ঘা দেচ্চে। তেল মশলার গায় একন বৈশেকের তাপ। হাত দিয়া যাচ্চে না। আবার দুকানদার কোন জিনুসির দাম চালি খদ্দের কতা কওয়া তো দূরি থাক তার দিকি তাগানোডাই একন অপরাদের পযযায়ে চইলে যাচ্চে। ভাবডা ইরাম নিলি ন্যাও না হলি জাগা খালি করো। রুযার আগে কত মিটিং সিটিং হইলো। কত কতার ফুলঝুরি শুনলাম তার কোন চিন্ন বাজারে পাওয়া যাচ্চে না। বাজারের পেত্তেকটা জিনুসির দাম চুতা কইরে বোডে ট্যাঙানোর কতা থাকলিও কোন দুকানে তা মানা হচ্চে কিনা আমার চোকি পড়িনি। যারা এট্টু স্যায়না ব্যবসায়ী তারা দামের জন্যি দুকানে এট্টা বোড ঝুলোয় থুইয়েচে। সে বোডে নানা জিনুসির নাম লিকা থাকলিও দামের জাগায় দুই এট্টা কুমা জিনুসির দাম পেন্সুল কিম্বা খড়িমাটি দিয়ে লিকে থুইয়েচে বাদবাকি সব জাগা ফাকা। তেবে বেশীর ভাগই এইসব বালাই’র ধারের কাচে নেই। জিনুসির দাম কেন বাড়ে ইরাম কতার উত্তর তলাশ কত্তি গেলি আসে বালিশ চালাচালি খেলা। কেউ দায় নিতি চায় না। খুচরো বিক্কির করাগের সাফ কতা পাইকেরীয়ালারা দাম বাড়ায় দিলি তারা কি করবে। পাইকেরীয়ালাগের কাচে শুনলি কবে বাজারে মাল জিনুসির ঘাটতি। মুকামে পাওয়া যাচ্চে না, যদিও বা কিনে আনচি পতে পতে টিরাকে লরির তেল মবিলির দাম বাড়তি,রাস্তাঘাটে চান্দাবাজি ধান্দাবাজির জন্যি খরচ বাইড়ে যাচ্চে, করোনা, লকডাউন ইডা সিডা আরো কতো কি। এই নিয়ে দু’কতা কতি গেলিই হয়ত কইয়ে দেবে রুযা কি খাওয়া দাওয়ার মাস, রুযা হচ্চে সংযমের মাস। রুযার মাসে আল্লাহ তার বান্দাগের পরীক্কে করেন। বাজারে জিনুসের দাম নিয়ে সেই পরীক্কে দিয়ে যাচ্চি জানি নে পরীক্কের শেষ কনে ?
ইতি
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft