অর্থকড়ি
শিরোনাম: ক্যাপিটল হিলের সামনে ট্রাম্প সমর্থকদের বিক্ষোভ       বিবাহ বিচ্ছেদ চেয়ে মামলা করলেন শ্রাবন্তী       স্কুল-কলেজে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি নেই : শিক্ষামন্ত্রী       সরকার আরেকজন নুরুল হুদা খুঁজছে : রিজভী       আফগানিস্তানে শুধু ছেলেদের জন্য খুলল স্কুল       নওগাঁর আত্রাইয়ে আশ্রয়ন প্রকল্পের শিশুদের জন্য নির্মিত হলো দৃষ্টিনন্দন শিশুপার্ক       চট্টগ্রামে ৫০ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ২       বিএনপি বিদেশেও দেশের ভাবমূর্তি বিনষ্ট করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত : কাদের       রাসেল দম্পতির বিরুদ্ধে আরেক মামলা       ফখরুলের মামলার চার্জগঠন পেছাল      
পেঁয়াজের কেজি ৩৫ টাকা
হিলি সংবাদদাতা :
Published : Friday, 4 June, 2021 at 7:56 PM, Count : 400
পেঁয়াজের কেজি ৩৫ টাকাএক দিনের ব্যবধানে আমদানিকৃত ও দেশি পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ১৫-১৮ টাকাএক দিনের ব্যবধানে আমদানিকৃত ও দেশি পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ১৫-১৮ টাকা
এক মাস চার দিন পর দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। ফলে এক দিনের ব্যবধানে আমদানিকৃত ও দেশি পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ১৫-১৮ টাকা। পেঁয়াজের দাম কমায় নিম্নআয়ের মানুষের মাঝে স্বস্তি ফিরেছে। আমদানি অব্যাহত থাকলে পেঁয়াজের কেজি ২০-২৫ টাকায় নেমে আসবে বলে জানিয়েছেন আমদানিকারকরা।
শুক্রবার (০৪ জুন) সকাল থেকে হিলিতে ভারতীয় পেঁয়াজের কেজি ৩৫ টাকা এবং দেশি পেঁয়াজ ৪৩ টাকা বিক্রি হচ্ছে। এর আগে বৃহস্পতিবার (০৩ জুন) বিকেলে ভারত থেকে চার ট্রাকে ৯৫ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়। হিলি স্থলবন্দরের মেসার্স রাইয়ান ট্রেডার্স এসব পেঁয়াজ আমদানি করেছে। যার স্বত্বাধিকারী শহিদুল ইসলাম। আমদানি করা পেঁয়াজের কেজি ৩৫ টাকা বিক্রি হচ্ছে বলে ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন।
হিলি বাজারে পেঁয়াজ কিনতে আসা শেরেগুল ইসলাম ও ইসাহাক আলী বলেন, কয়েকদিন ধরে যে হারে পেঁয়াজের দাম বাড়ছিলো; তাতে আমাদের মতো খেটে খাওয়া মানুষকে চরম বিপাকে পড়তে হয়েছিলো। পেঁয়াজ আমদানি শুরুর ফলে দাম কমেছে। দুদিন আগেও দেশি পেঁয়াজ ৬০ টাকা কিনেছিলাম; তা এখন ৪৩ টাকা বিক্রি হচ্ছে। ভারতীয় পেঁয়াজ ৪৮ টাকা উঠেছিলো, তা এখন ৩৫ টাকায় নেমেছে।
হিলি বাজারের পেঁয়াজ ব্যবসায়ী শাকিল খান ও ফিরোজ হোসেন জানান, দীর্ঘদিন পর হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হওয়ায় এক দিনের ব্যবধানে পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। কেজিতে দাম কমেছে ১৫-১৮ টাকা।
তারা জানান, আমদানি আরও বাড়বে এবং পেঁয়াজের দাম আরও কমবে। কয়েকদিনের মধ্যে পেঁয়াজের কেজি ২০-২৫ টাকায় নেমে আসবে। এক দিন আগেও ভারতীয় পেঁয়াজ প্রকারভেদে ৪৫-৪৮ টাকা কেজি দরে বিক্রি করেছিলাম। এখন তা ৩২-৩৫ টাকা বিক্রি করছি। দেশি পেঁয়াজ প্রকারভেদে যেখানে ৫৫-৬০ টাকা কেজিতে বিক্রি করেছিলাম; তা এখন ৪০-৪২ টাকা বিক্রি করছি। দাম কমায় পেঁয়াজের বিক্রিও বেড়েছে।
হিলি স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারক মামুনুর রশীদ লেবু বলেন, দেশি কৃষকের উৎপাদিত পেঁয়াজের দাম নিশ্চিত করতে এবং কৃষকের ঘরে পর্যাপ্ত পেঁয়াজ মজুত রয়েছে মর্মে আইপি (ইমপোর্ট পারমিট) দেওয়া বন্ধ করে দেয় মন্ত্রণালয়। এতে করে গত ২৯ এপ্রিল থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হয়ে যায়। আমদানি বন্ধের ফলে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম হু হু করে বেড়ে যায়। যে কারণে আইপি দেওয়া বন্ধ করা হয়েছিলো, প্রকৃতপক্ষে পেঁয়াজ কৃষকের ঘরে নেই; রয়েছে মজুতদারদের হাতে। ফলে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যায়। সামনে ঈদুল আজহায় পেঁয়াজের চাহিদা আরও বাড়বে। আমদানি শুরু হওয়ায় পেঁয়াজের সংকট কেটে গেছে। এক দিনে কেজিতে দাম কমেছে ১৫-১৮ টাকা। নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে বাজার। পেঁয়াজের আমদানি আরও বাড়বে। এতে করে ২০-২৫ টাকায় দেশের মানুষকে পেঁয়াজ খাওয়াতে পারবো আমরা।
তিনি বলেন, ইতোমধ্যে হিলি স্থলবন্দরের বিভিন্ন আমদানিকারক ৩৫ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির আইপি পেয়েছেন। সবার মালামাল ইতোমধ্যে লোডিং হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব পেঁয়াজ দেশে চলে আসবে। এক সপ্তাহের মধ্যে পেঁয়াজের দাম ২০-২৫ টাকায় নেমে আসবে।
হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বলেন, আইপি (ইমপোর্ট পারমিট) না থাকায় গত ২৯ এপ্রিল থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ ছিলো। নতুন করে আইপি পাওয়ার ফলে বৃহস্পতিবার থেকে আমদানি শুরু হয়েছে। প্রথমদিন চার ট্রাকে ৯৫ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। কাস্টমসের সব প্রক্রিয়া শেষে দ্রুত খালাস করে আমদানিকারকদের বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।
এদিকে পুনরায় বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানির ফলে দৈনন্দিন আয় যেমন বেড়েছে তেমনি বন্দরে কর্মরত শ্রমিকদের আয়ও বেড়েছে।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft