দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
শিরোনাম: যশোরে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ৪২ মামলা, ৪২ জনের জেল       করোনা নিভিয়ে দিল ফকির আলমগীরের জীবন প্রদীপ       হল না সিরিজ জয়, পরাজয়ের কারণ জানালেন মাহমুদউল্লাহ       যশোর পৌরপার্কের পুকুরে ক্যাডেট কলেজ পড়ুয়া এক ছাত্র নিখোঁজ        যশোর ঝিগরগাছায় স্বাস্থ্য বিভাগের অভিযান তিন প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা       ডুমুরিয়ায় পানিতে ডুবে 'ভাই-বোনের মৃত্যু       যশোরে জাসদ নেতার বোনের মৃত্যু : শোক       ডাক্তার এমদাদুল হক আর নেই, শোক        ১৮ হচ্ছে করোনা টিকা নেয়ার বয়সসীমা        যশোরে করোনায় আরও ৬ মৃত্যু, কমেছে পরীক্ষা ও শনাক্তের সংখ্যা       
চৌগাছায় ইট ভাটা পুনরুদ্ধারের জন্য সংবাদ সম্মেলন
চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি
Published : Monday, 14 June, 2021 at 8:32 PM, Count : 309
চৌগাছায় ইট ভাটা পুনরুদ্ধারের জন্য সংবাদ সম্মেলন যশোরের চৌগাছায় ইট ভাটা দখলের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগী। সোমবার দুপুরে চৌগাছা প্রেসক্লাবের অস্থায়ী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন হয়। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন এইচএম ব্রিকসের স্বত্বাধিকারী মাহাবুবুর রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন খোরশেদ আলম, কামরুজ্জামান, রশিদ আলম, রবিউল ইসলাম লাভলু খান প্রমুখ। মাহাবুবুর রহমান উপজেলার আন্দারকোটা গ্রামের তোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ২০১৫ সালে যশোরের চৌগাছা উপজেলার কমলাপুর মোড়ে ৭ একর জমির উপর এইচএম ব্রিকস নামে একটি হাওয়া ইট ভাটা প্রতিষ্ঠা করে পরিচালনা করে আসছেন। ভাটার ট্রেড লাইসেন্স, ভ্যাট, রেজিস্ট্রেশন, আয়কর, ফায়ার লাইসেন্সসহ সমুদয় কাগজপত্র তার নিজের নামে। একই সাথে তিনি ভাটার সমুদয় কাগজপত্রের আয়করের টাকা সরকারি কোষাগারে নিয়মিত পরিশোধ করেছেন। কিছুদিন আগে তার একমাত্র ভাই হাবিবুর রহমান হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান এবং পিতা-মাতা অসুস্থ হলে তাদের চিকিৎসার খরচ বহন করাসহ নানাবিধ অসুবিধার কারণে তিনি ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েন। সেই সময় ভাটাটি বন্ধ হবার উপক্রম হয়। ২০১৯ সালের ২২ জুলাই উপজেলার চাঁদপাড়া গ্রামের সোলাইমান হোসেন খানের ছেলে গোলাম রসুলকে নন জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে অংশীদার ভিত্তিক চুক্তিনামা করেন। ভাটার সকল কাগজপত্র, লাইসেন্স, এবং ভাটায় ব্যবহৃত জিনিসপত্রের আনুমানিক মূল্য ধরা হয় প্রায় ৩ কোটি টাকা। ভাটা পরিচালনার সুবিধার্থে ভাটার মূল্য ১ কোটি টাকা নির্ধারণ করে ৫০% হিসাবে ৫০ লাখ টাকায় ভাটার অর্ধেক শেয়ার গোলাম রসুলকে প্রদান করেন। একই সাথে ২০ লাখ টাকা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করার জন্য রেখে দেন। ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে পারিবারিক সমস্যার কারণে ইট ভাটায় নিয়মিত যেতে পারতেন না। ভাটার অংশীদার গোলাম রসুল নিজেই পরিচালনা করতেন। ২০১৯-২০২০ অর্থ বছর শেষে গোলাম রসুলের নিকট আয়-ব্যয়ের হিসাব চাইলে সময় ক্ষেপণ করতে থাকেন। এমনকি ব্যবসার লভ্যাংশের কোন হিসাব দেননি। একপর্যায়ে সমস্ত পাওনা দিতে অস্বীকার করেন।
লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, বর্তমানে গোলাম রসুল নিজেই ভাটা দখল করে পরিচালনা করছেন। ভাটায় গেলে তাকে প্রবেশ করতে দেন না। একই সাথে তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছেন। এ সকল বিষয়ে তিনি চৌগাছা থানায় গোলাম রসুলের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরী করেন।
সাধারণ ডায়েরী মোতাবেক থানা পুলিশ তদন্ত করে গোলাম রসুলের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে নন এফআইআর প্রসিকিউশন দাখিল করেন। এতে গোলাম রসুল হিসাব-নিকাশ আমাকে বুঝিয়ে না দিয়ে নানা রকম ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হন। নিজের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে ও ভাটা ফেরত পাওয়ার জন্য বিজ্ঞ চৌগাছা আমলী আদালতে গোলাম রসুলের বিরুদ্ধে ১২ জানুয়ারি মামলা করেন।
বিজ্ঞ আদালত সূত্রে বর্ণিত সিআর মামলাটি সুষ্ঠু তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) যশোরকে নির্দেশ দেন। বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশ মোতাবেক মামলাটি এসআই শরিফ এনামুল হক সরেজমিন তদন্ত করে গোলাম রসুলের বিরুদ্ধে প্যানাল কোডের ৪০৬/৪২০/৫০৬(২) ধারার অপরাধের সত্যতা পেয়ে বিজ্ঞ আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন।
মাহাবুবুর রহমান লিখিত বক্তব্যে আরো বলেন, বিগত ঈদুল ফিতরের আগে তিনি যশোর-২  (চৌগাছা-ঝিকরগাছা) আসনের এমপি মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল  (অবঃ) অধ্যাপক ডাক্তার নাছির উদ্দিন, বাংলাদেশ মানবাধিকার কল্যাণ ট্রাস্টের মহাসচিব সাইফুল ইসলাম, চৌগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম সবুজসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, গণমাধ্যম কর্মীদের উপস্থিতিতে শালিস বৈঠক হয়। প্রতিষ্ঠানের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে ভাটা আমার নিকট হস্তান্তরের জন্য সিদ্ধান্ত দেন। এমপি ও প্রশাসনের সিদ্ধান্ত অমান্য করে তিনি জোর পূর্বক ভাটাটি দখল করে রাখেন। তিনি ভাটাটি ফেরত পাওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।
চৌগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম সবুজ বলেন, বিষয়টি মীমাংসার জন্য আমরা থানায় উভয় পক্ষের সাথে কয়েকদফা বসেছি। যেহেতু বিষয়টি বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন, সেহেতু আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে আমরা শক্ত অবস্থানে রয়েছি। বিজ্ঞ আদালতের রায়ের পর প্রকৃত মালিক যিনি হবেন, তাকে তার ভাটা বুঝিয়ে দিতে সহযোগিতা করবো।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft