দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
শিরোনাম: আফগানিস্তানে শুধু ছেলেদের জন্য খুলল স্কুল       নওগাঁর আত্রাইয়ে আশ্রয়ন প্রকল্পের শিশুদের জন্য নির্মিত হলো দৃষ্টিনন্দন শিশুপার্ক       চট্টগ্রামে ৫০ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ২       বিএনপি বিদেশেও দেশের ভাবমূর্তি বিনষ্ট করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত : কাদের       রাসেল দম্পতির বিরুদ্ধে আরেক মামলা       ফখরুলের মামলার চার্জগঠন পেছাল       ‘অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র মিথ্যাচার করেছে’       ‘ভাসানচরে যুক্ত হবে জাতিসংঘ, সমঝোতা স্মারক চূড়ান্ত’       চীনে যাত্রীবাহী জাহাজ উল্টে ৮ জন নিহত       রাজ-শিল্পার সংসার ভেঙে যাচ্ছে ?      
লকডাউন শিথিলের ২য় দিন থেকে যশোর শুরু হয়েছে প্রচন্ড যানজট
দেওয়ান মোর্শেদ আলম
Published : Sunday, 18 July, 2021 at 7:22 PM, Count : 266
লকডাউন শিথিলের ২য় দিন থেকে যশোর শুরু হয়েছে প্রচন্ড যানজটযানজট ছাড়াতে রীতিমত হিমসিম খাচ্ছে পুলিশ। কোনোমতেই নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। একেতো শহরের অধিকাংশ ব্যাংক, মার্কেট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পার্কিং ব্যবস্থা নেই। তারপর আবার ঈদ বাজারে মানুষের চাপ। কঠোর লকডাইন শিথিলের দ্বিতীয় দিন থেকে গোটা যশোর শহর যানজটে নাকাল পরিস্থিতি পার করছে। আজ এবং কাল যানজট আরো বাড়বে আর নাকাল পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হবে পুলিশকে।  
দেশে প্রতিদিনই করোনা রোগী বাড়ছে, একই সাথে দেশ জুড়ে মৃত্যু আতঙ্ক। ভয়ানক পরিস্থিতি ওভারকাম করতে দুই সপ্তাহের কঠোর লকডাউন পালনের পর ঈদুল আযহাকে সামনে রখে লকডাউন শিথিল করা হয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে কেনাকাটা করা ও মার্কেট খোলার ব্যাপারে সরকারি সিদ্ধান্তে চলমান রয়েছে ঈদ বাজার। কিন্তু স্বাস্থ্যবিধির ব্যত্যয় ঘটিয়ে ও নির্দেশনা না মেনে আর ঈদের আনন্দ পরিপূর্ণ করতে যশোরের বিপণী বিতানগুলোতে করোনা সংকটেও ভীড় শুরু হয়েছে। চলছে ধুম কেনাকাটা। ব্যবসায়ীরাও এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন। শেষ মুহূর্তে যশোরে ঈদ বাজার জমে উঠেছে। আর সাথে পাল্লা দিয়ে শহরে শুরু হয়েছে যানজট।
গত দুদিন যশোরের দড়াটানা মোড়, থানা মোড়, সোনালী ব্যাংক মোড়, এমএসটিপি স্কুল মোড়. পাইপপট্টি, মাইকপট্টি, আইনজীবী ভবন মোড়, চারখাম্বা মোড়, বিশেষ করে দড়াটানা থেকে থানার মোড়ে বস্তাপট্টি পর্যন্ত প্রচন্ড যানজট শুরু হয়েছে। সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত যানজট লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এছাড়া যশোর শহরের এইচ এমএম রোড, বড় বাজার, গোহাটা রোড, চুড়িপট্টি, পাইপপট্টি, মাইকপট্ট্রিসহ আরো কয়েকটি মার্কেট ও কয়েকটি সড়কে পায়ে হাটা মানুষের পাশাপাশি মোটরসাইকেল ঢুকিয়ে যানজট সৃষ্টি করা হচ্ছে। মোড়ে কর্মরত ট্রাফিক পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে আবার তাদের সামনে দিয়েই এলোমেলো গাড়ি চলাচল করে যানজট বৃদ্ধি করছে। বিশেষ করে শহরের চৌরাস্তা তিন রাস্তা মোড় গুলোতে যানজট বেশি। প্রচন্ড গরমের সাথে যানজটের ভোগান্তি যশোরের নাগরিক জীবনে কষ্ট বাড়িয়ে দিচ্ছে। এরপর শহরে যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং করে যানজট বাড়ানো হচ্ছে।
এ ব্যাপারে যশোর সদর ট্রাফিক বিভাগের ইন্সপেক্টর প্রশাসন মাহাবুব কবীর গ্রামের কাগজকে জানিয়েছেন, এমনিতেই যশোর শহরের অধিকাংশ মার্কেট ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, এমনকি ব্যাংকের পাকিং ব্যবস্থা নেই। যশোর শহরে এখন জায়গার তুলনায় ৫ গুন গাড়ি। গত ৫ বছরে গাড়ি হয়েছে দ্বিগুনের বেশি। ট্রাফিকের কঠোর তদারকির পরও জানজট থেকেই যায়। আর ঈদ ও পুজার সময় শহরে মানুষের আসা যাওয়া বেড়ে যায় কেনাকাটার কারণে। কিন্তু করোনা পেন্ডামিকের কারণে এবং সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী যানজট হওয়ার কথা ছিল না। এরপরও যানজট সৃষ্টি শহরে মানুষ মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন ভার্সনের যান নিয়ে ঢুকছেন। যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং এবং ফুটপাত ও রাস্তার একাংশ হকারদের দখলে চলে যাওয়াতেও যানজট বাড়ছে। অস্থায়ী রোড ডিভাইডার করা হয়েছে। তিনি সহ তার টিম সাধ্যমত কাজ করছেন। ঈদের পরে  পৌরসভার সাথে আলোচনা করে যানজট পরিস্থিতি রোধে যৌথ পরিকল্পনা হাতে নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft