দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
শিরোনাম: যশোরে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ৪২ মামলা, ৪২ জনের জেল       করোনা নিভিয়ে দিল ফকির আলমগীরের জীবন প্রদীপ       হল না সিরিজ জয়, পরাজয়ের কারণ জানালেন মাহমুদউল্লাহ       যশোর পৌরপার্কের পুকুরে ক্যাডেট কলেজ পড়ুয়া এক ছাত্র নিখোঁজ        যশোর ঝিগরগাছায় স্বাস্থ্য বিভাগের অভিযান তিন প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা       ডুমুরিয়ায় পানিতে ডুবে 'ভাই-বোনের মৃত্যু       যশোরে জাসদ নেতার বোনের মৃত্যু : শোক       ডাক্তার এমদাদুল হক আর নেই, শোক        ১৮ হচ্ছে করোনা টিকা নেয়ার বয়সসীমা        যশোরে করোনায় আরও ৬ মৃত্যু, কমেছে পরীক্ষা ও শনাক্তের সংখ্যা       
নওদাগাঁয় কবিরাজি চিকিৎসার নামে আসমার রমরমা প্রতারণা
আশিকুর রহমান শিমুল :
Published : Monday, 19 July, 2021 at 9:07 PM, Update: 19.07.2021 10:02:37 PM, Count : 355
নওদাগাঁয় কবিরাজি চিকিৎসার নামে আসমার রমরমা প্রতারণাযশোর সদর উপজেলার মোমিননগর নওদাগাঁর আসমা বেগম নামে এক কবিরাজ ‘জিন হাজির’ করে সর্বরোগের চিকিৎসা দিচ্ছেন। সকল জটিল ও কঠিন রোগের সমাধান তার জানা! নিঃসন্তান দম্পতিকে দেন সন্তান জন্ম দেয়ার দাওয়াই। শুধু তাই না, প্রেমে রাজি করানো, স্বামী-স্ত্রীর মনোমালিন্য দূরীকরণ, স্বামীকে বশ করাসহ যাবতীয় সমস্যা সমাধান করে থাকেন। এমন প্রচারণা করে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

সূত্র জানায়, নওদাগাঁর মকসেদ আলী সড়কের মিজানুর রহমান ওরফে মিজান স্ত্রী আসমা ও দুই সন্তান নিয়ে বসবাস করেন। মিজানুর রহমান শহরের একটি কাপড়ের দোকানের কর্মচারী। এক সময় তাদের নুন আনতে পান্তা ফুরোতে। হঠাৎ একদিন আসমা বেগম গ্রামে প্রচার করেন, তিনি রাতে ঘুমের মধ্যে স্বপ্নে সর্বরোগের ওষুধ লাভ করেছেন। খবরটি গ্রামে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এরপর থেকে শুরু হয় আসমা বেগমের কবিরাজি ও সর্বরোগের ওষুধ প্রদান। এ সময় ফ্রিতে মানুষকে তদবির দিতেন। বর্তমানে তার ফি তিন হাজার টাকা। ওই টাকা পরিশোধ না করলে তার সাথে সাক্ষাৎ করা সম্ভব না। বর্তমানে বসবাস করে আলিশান বাড়িতে। সেবার নামে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। নওদাগাঁয় কবিরাজি চিকিৎসার নামে আসমার রমরমা প্রতারণা

টাকা হারিয়ে গেছে মর্মে তদবির আনতে কবিরাজ আসমার বাড়িতে গেলে জানানো হয়, টাকা পাওয়া যাবে তবে তার জন্যে তিন হাজার টাকা হাদিয়া দিতে হবে। টাকা দিতে রাজি হলে, বাড়ির সামনে একটি কবরের কাছে গিয়ে আসমা সাধনায় বসেন। সাধনা শেষে জানানো হয়, তিনি ‘জিন হাজির’ করে জানতে পেরেছেন টাকা কোথায় আছে। দুইদিন সময় দিলে তিনি টাকা উদ্ধার করে দেবেন বলে জানান। এ সময় কবিরাজকে গণমাধ্যম কর্মী পরিচয় দিয়ে বলা হয় কোনো টাকা খোয়া যায়নি। তাহলে তিনি কীভাবে ‘জিন হাজির’ করে টাকার সন্ধান দিবেন! এভাবে কবিরাজ আসমা বেগমের প্রতারণা ধরা পড়ে গেলে তিনি ক্ষমা চান। মানুষের সাথে আর প্রতারণা করবেন না বলেও জানান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি জানান, স্ত্রীকে বশ করার জন্যে কবিরাজের কাছে গিয়েছিলাম। পাঁচ হাজার টাকার বিনিময়ে দুইটি তাবিজ দিয়েছিল। কোনো কাজ হয়নি। সময় মতো টাকা পরিশোধ না করতে পারায় কবিরাজকে একটি ছাগল হাদিয়া দিতে হয়েছে।

যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আব্দুল গণি খান জানান,  যেকোনো ধরনের তাবিজতো নয়ই, বরং কোরআনের আয়াত লেখা তাবিজও ব্যবহার করা যাবে না। রাসূল (সা.) বলেছেন, যে ব্যক্তি তাবিজ ঝোলাল, সে ব্যক্তি কুফরি করল এবং শিরক করল।

সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন জানান, রোগে আক্রান্ত হলে কুসংস্কার বিশ্বাস না করে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। কবিরাজের ফাঁদে পা দিয়ে বহু মানুষ জীবন হারিয়েছে। ঝাড়ফুঁকের মাধ্যমে নিঃসন্তান দম্পতিকে সন্তান জন্ম দেয়ার দাওয়াই স্রেফ গুজব। নওদাগাঁয় কবিরাজি চিকিৎসার নামে আসমার রমরমা প্রতারণা

এ ব্যাপারে কোতোয়ালি থানার ওসি (তদন্ত) শেখ তাসমিম আহমেদ জানান, কেউ যদি কবিরাজি চিকিৎসার নামে প্রতারণার ফাঁদ পেতে টাকা আত্মসাৎ করে তাকে ছাড় দেয়া হবেনা। অভিযোগ গেলে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft