দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
শিরোনাম: যশোরে দেড় লাখ মানুষ পাচ্ছে টিকা        প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে ৮০ লাখ মানুষকে দেয়ার উদ্যোগ       কেন্দ্রীয় নির্দেশনায় হবে দলীয় মনোনয়ন       বাজারে এসেছে ডাবল ডিস্ক এ.বি.এস মোটরসাইকেল       যশোরে পাঁচ চেয়ারম্যানের সম্পদ কত? (ভিডিও)       এহসান ইস্যুতে হাফডজন মামলায় মুফতি ফুরকানসহ অনেকেই নির্দোষ প্রমাণিত       টেকসই উন্নয়নে নিজস্ব প্যাটেন্ট তৈরির বিকল্প নেই : যবিপ্রবি উপাচার্য       যশোরের কায়েতখালীতে মা মেয়ের অপতৎপরতায় পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে       ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে যেসব পুষ্টি উপাদানের অভাবে       দেশের মানুষ এখন আর ক্ষুধার্ত থাকে না : তথ্যমন্ত্রী      
কলারোয়ায় প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া প্রণোদনার টাকা নয়-ছয়
কলারোয়া পৌর (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি:
Published : Sunday, 25 July, 2021 at 10:15 PM, Count : 176
কলারোয়ায় প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া প্রণোদনার টাকা নয়-ছয়সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ননএমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া প্রণোদনার টাকা নয়-ছয়ের অভিযোগ উঠেছে। একই প্রতিষ্ঠানের কেউ পেয়েছেন আবার কেউ পাননি। প্রায় এক মাস হয়ে গেলেও এর সদুত্তর দিতে পারছেন না সংশ্লিষ্টরা। অথচ গত বছর চেকের মাধ্যমে ব্যাংক একাউন্টে অনুরূপ প্রণোদনার টাকা সকলে পেয়েছিলেন। জাতীয় পরিচয়পত্র, নাম, মোবাইল নাম্বারসহ সবকিছু সঠিক থাকলেও প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া প্রণোদনার টাকা প্রাপ্তিতে বৈধ নিয়োগ প্রাপ্তদের এমন ভোগান্তি আর টাকা না পাওয়ার শঙ্কা মেনে নেওয়া কষ্টের বলে মনে করছেন ভুক্তভোগীরা।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, করোনাকালে বিপর্যস্ত ননএমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষক ও কর্মচারীদের জন্য চলতি বছরের ঈদুল ফিতরের আগে প্রণোদনার টাকা বরাদ্দ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শিক্ষকদের ৫ হাজার টাকা ও কর্মচারীদের আড়াই হাজার টাকা করে বরাদ্দ দেওয়া হয়। রহস্যজনক নানান জটিলতা কাটিয়ে প্রণোদনার সেই টাকা ঈদুল আজহার কয়েকদিন আগে মোবাইল ফোনে নগদ একাউন্টে আসা শুরু হয়। তবে প্রণোদনার টাকা একই প্রতিষ্ঠানের একই স্তরের (উচ্চ মাধ্যমিক/ডিগ্রি) একই সাথে কর্মরত ননএমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের কেউ পেয়েছেন আবার কেউ পাননি। অন্যদিকে একই উপজেলার একটি ননএমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা তাদের মোবাইলের নগদ একাউন্টে টাকা এসেছে আবার পাশের অন্য ননএমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের এখনো টাকা আসেনি।
এমনই তছরুপ আর নয়-ছয়ের ভোগান্তিতে পড়েছেন প্রণোদনার টাকা না পাওয়া ভুক্তভোগীরা। তারা বলছেন, গত বছর প্রধানমন্ত্রী অনুরূপভাবে প্রণোদনার টাকা ব্যাংক একাউন্ট চেকের মাধ্যমে শিক্ষকদের জন্য ৫ হাজার ও কর্মচারীদের জন্য আড়াই হাজার টাকা দিয়েছিলেন। সেসময় তালিকাভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা বিনা ভোগান্তিতে সহজেই টাকা পেয়েছিলেন। তবে এবার নগদ একাউন্টের মাধ্যমে মোবাইল একাউন্টে টাকা আসার প্রক্রিয়ায় ভোগান্তিতে পড়ছেন শিক্ষক-কর্মচারীরা। একই প্রতিষ্ঠানে ডিগ্রি  স্তরে কর্মরত  ছয় জন শিক্ষকের মধ্যে চার জন পেয়েছেন, দু’জন পাননি। কর্মচারী চার জনের মধ্যে দু’জন পেয়েছেন, দু’জন পাননি। সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া উপজেলার বোয়ালিয়া মুক্তিযোদ্ধা ডিগ্রী কলেজের বাংলা বিভাগের ননএমপিও শিক্ষক মুরাদ হোসেন বলেন, তার কলেজের ডিগ্রী স্তরের শিক্ষকদের ছয় জনের মধ্যে চার জন নগদ একাউন্টে মোবাইলে টাকা পেয়েছেন অথচ দুইজন এখনো পাননি। আমাদের সব তথ্য সঠিক আছে। একই উপজেলার ইঞ্জিনিয়ার শেখ মুজিবুর রহমান কলেজের অফিস সহকারি বিলকিস রুখসানা বলেন, এখনো পর্যন্ত তার কলেজের কোন শিক্ষক কর্মচারী প্রণোদনার টাকা পাননি।
এ বিষয়ে কলারোয়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল হামিদ জানান, প্রতিষ্ঠান থেকে পাওয়া তালিকা জেলা শিক্ষা অফিসের মাধ্যমে পাঠানো হয়, তাতে কোন ভুলত্রুটি এখনো পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, গত বছর অনুরূপ তালিকা পাঠানো হলে চেকের মাধ্যমে টাকা আসে। সেই একই তালিকা এবারও পাঠানো হয়েছে তাতে কেন টাকা আসলো না বিষয়টি বুঝতে পারছি না। আমাদের এখানে যেটা করণীয় সেটা করেছি, আমাদের এই মুহূর্তে কোনো নির্দেশনা নেই।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) জুবায়ের হোসেন চৌধুরী বলেন, সংশ্লিষ্ট দপ্তর এ বিষয়ে আমাকে কোন কিছু অবগত করেনি। এদিকে, ভুক্তভোগী ননএমপিও শিক্ষক-কর্মচারীরা অবিলম্বে প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনা টাকা পাওয়ার জন্য সংশিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft