সারাদেশ
শিরোনাম: থেকেই যাচ্ছে ঝুঁকি       যশোরে ৯৯ ভাগ শিক্ষার্থীর টিকা গ্রহণ       রাষ্ট্রপতি পদক পেলেন পিবিআই যশোরের এসপি রেসমা       বেনাপোলে ৫ কেজি গাঁজাসহ ৩ মাদক কারবারী আটক        এক আসামির স্বীকারোক্তি, আরেকজন রিমান্ডে       যশোরের ফরিদপুরে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের দুই নারীকে জখম       ইছালীতে এমপি নাবিলের পক্ষে কম্বল বিতরণ       বাংলা একাডেমি পুরস্কার পাচ্ছেন হোসেনউদ্দীন হোসেন        অস্ত্র ও চোরাচালান মামলায় দু’জন রিমান্ডে        বাগেরহাটে করোনা সংক্রমণের হার ৫০ শতাংশ      
কুড়িগ্রামের সেই ডিসি ‘লঘুদণ্ড’ থেকে অব্যাহতি পেলেন
কাগজ ডেস্ক :
Published : Saturday, 27 November, 2021 at 4:54 PM, Count : 82
কুড়িগ্রামের সেই ডিসি ‘লঘুদণ্ড’ থেকে অব্যাহতি পেলেনসাংবাদিককে নির্যাতনের ঘটনায় আলোচিত কুড়িগ্রামের সাবেক জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীনকে যে ‘লঘুদণ্ড’ দিয়েছিল জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, তা থেকে এই কর্মকর্তাকে অব্যাহতি দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি।
গত ২৩ নভেম্বর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব কে এম আলী আজম স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে দণ্ড মওকুফের বিষয়টি জানানো হয়, যা প্রকাশ্যে আসে শনিবার।
প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ‘যেহেতু মোছা. সুলতানা পারভীন তার উপর অরোপিত উল্লিখিত লঘুদণ্ডাদেশ মুকুফের জন্য গত ৬ সেপ্টেম্বর মহামান্য রাষ্ট্রপতির সমীপে আপিল আবেদন পেশ করলে মহামান্য রাষ্ট্রপতি সদয় হয়ে মোছা. সুলাতানা পারভীনের আপিল আবেদন বিবেচনা করে পূর্বে প্রদত্ত দুই বছরের জন্য ‘বেতন বৃদ্ধি স্থগিত রাখা’নামীয় দণ্ডদেশ বাতিল করে তাকে অভিযোগের দায় হতে অব্যাহতি প্রদান করেছেন। সেহেতু মোছা. সুলতানা পারভীন, প্রাক্তন জেলা প্রশাসক, কুড়িগ্রাম, বর্তমানে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (উপসচিব), জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়- এর বিরুদ্ধে রুজুকৃত বিভাগীয় মামলায় দুই বছররের জন্য বেতন বৃদ্ধি ‘স্থাগিত রাখা’ নমনীয় লঘুদণ্ড প্রদান করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের গত ১০ আগস্টের প্রজ্ঞাপনটি বাতিলপূর্বক তাকে অভিযোগের দায় থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হল।’
কুড়িগ্রামে জেলা প্রশাসক হিসেবে দায়িত্বে থাকাকালে সুলতানা পারভীন একটি পুকুর সংস্কার করে নিজের নামে নামকরণ করতে চেয়েছিলেন। স্থানীয় সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম এ বিষয়ে নিউজ করার পর থেকেই তার ওপর ক্ষুব্ধ ছিলেন ডিসি। এ ঘটনার জেরে গত বছরের ১৩ মার্চ মধ্যরাতে সাংবাদিক আরিফের বাসায় হানা দিয়ে তাকে তুলে ডিসি অফিসে এনে নির্যাতন করা হয়। এরপর আধা বোতল মদ ও দেড়শ গ্রাম গাঁজা পাওয়ার অভিযোগ এনে ওই রাতেই তাকে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়ে জেলে পাঠানো হয়।
ঘটনাটি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নজরে এলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ রংপুর বিভাগীয় কমিশনারকে তদন্তের নির্দেশ দেয়। রংপুর বিভাগীয় কমিশনার অফিসের কর্মকর্তারা তদন্ত করে প্রতিবেদনের খসড়া মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠায়। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ডিসির কাজে অনিয়ম পাওয়ায় তাকে প্রত্যাহারের আদেশ দেয়। গত ১০ আগস্ট জারি করা প্রজ্ঞাপনে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় তার দুই বছরের বেতন বৃদ্ধি স্থগিত করে। কয়েক মাসের মাথায় সেই লঘুদণ্ড থেকেও রেহাই পেলেন আলোচিত এই সরকারি কর্মকর্তা।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft