মতামত
শিরোনাম: স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না যশোরের বিভিন্ন ব্যাংকের গ্রাহকরা       ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে নজর দিতে হবে নাস্তায়        যশোরের দু’ নির্বাচন কর্মকর্তাকে প্রত্যাহারের দাবিতে সাংবাদিকদের স্মারকলিপি প্রদান       সাতটি বোমাসহ একজন আটক       রাজারহাটে এমপি নাবিলের পক্ষে কম্বল বিতরণ       মাকে চেতনানাশক খাইয়ে সোনা ও টাকা চুরি        বান্ধবীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় কিশোরকে ছুরিকাঘাত        চট্টগ্রামকে হারাল খুলনা       প্রথম জয় সূর্য সংঘের       বিএনপি-জামায়াত দেশের উন্নয়নে ভীত : তথ্যমন্ত্রী      
৫০ বছরে বাংলাদেশ; প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি
নাজমুল হক
Published : Wednesday, 8 December, 2021 at 9:25 PM, Update: 08.12.2021 9:35:40 PM, Count : 431
৫০ বছরে বাংলাদেশ; প্রত্যাশা ও প্রাপ্তিপরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙে মানুষ মুক্তভাবে যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকতে চায়। মুক্তিযুদ্ধের দিকে দৃষ্টি দিলে কোটি কোটি মানুষের দুঃখ-দুর্দশার ছবি ভেসে ওঠে। আপন জন্মভূমি মৃত্যুগুহা হিসেবে দেখতে বাধ্য হওয়া অগণিত মানুষের অশ্রু আর রক্তের মর্মস্পর্শী মানুষকে আজো কাঁদায়। পৃথিবীর কোন জাতি পরাধীন হয়ে বেঁচে থাকতে চায় না। ১৬ ডিসেম্বর ; ৫০ বছর পূর্বে এই দিনে ৩০ লাখ তাজা প্রাণের বিনিময়ে পৃথিবীর মানচিত্রে অভ্যুদয় ঘটে রক্তস্নান লাল সবুজ পতাকার আশ্রয়স্থল স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশের। শোষণমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা, একটি উদার ও সংসদীয় গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা, মানবিক মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠা, ধর্ম নিরপেক্ষতা, ব্যক্তি স্বাধীনতা, নারীমুক্তি আন্দোলন ও শিক্ষার প্রসার, সংবাদপত্রের স্বাধীনতা, স্বাধীনতা বিরোধী শক্তিকে বিনাশ করাসহ ন্যায় ভিত্তিক আদর্শে ১৯৭২ সালে বিজয়ী দেশের বহুল প্রত্যাশিত সংবিধান রচিত হয়। বিজয় অর্জিত হলেও জনগণের লালিত স্বপ্ন ও অর্থনৈতিক মুক্তি আজো অর্জিত হয়নি। দুর্নীতি, দ্রব্যমূল্য ও মুদ্রাস্ফীতির আবার্তে জনজীবন আজ দুর্বিষহ ও বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। শিল্পের বিকাশ ও প্রসার ঘটেছে নগণ্য। সমাজের রন্দ্রে রন্দ্রে ঘুষ, দুর্নীতি, সন্ত্রাস, সাম্প্রদায়িকতা অক্টোপাসের মত জেকে বসেছে। শিক্ষাঙ্গনে বিরাজ করছে অস্থিরতা। মুদ্রাস্থিতির যাতাকলে পিষ্ট হচ্ছে মানুষ। ঋণের বোঝা বাড়ছে মানুষের। শিক্ষা জীবন শেষ করার পরে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হচ্ছে না। আবার কারিগরি শিক্ষার প্রসরতাও তেমন বাড়ছে না। লাখ লাখ মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। ফলে জীবনের সর্বক্ষেত্রে হতাশা বাড়ছে। বিশেষ করে মধ্যবিত্ত ও নিম্নআয়ের মানুষের মধ্যে। সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনি তেমন না থাকায় মানুষের মধ্যে কষ্ট বিরাজ করছে। মৌলিক অধিকার চিকিৎসাব্যায়ে মানুষ সর্বস্ব হারাচ্ছে। অনেকে রোগ যন্ত্রনায় কাতরানোর পরেও অর্থের অভাবে চিকিৎসা সেবা করাতে পারছে না। সরকারি হাসপাতালে সুযোগ সুবিধার অভাবের সাথে যোগ হয়েছে এক শ্রেণির চিকিৎসকের অবহেলা। অন্যদিকে, বেসরকারি হাসপাতালে অনেকটা নিঃস্ব হচ্ছে সাধারণ মানুষ।
২০২১ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপিত হচ্ছে। ৫০ বছরে পা রেখেছে বাংলাদেশ। এরই মধ্যে লেগেছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। স্কুল-কলেজ এখনও নিয়মিত খুলছে না। অর্থনৈতিক অবস্থা শোচনীয়। মানুষের মাঝে হতাশাও বাড়ছে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে বেড়েছে অপরাধ। আয়তনে ৯৪তম এ দেশ সর্বশেষ মানব উন্নয়ন সূচকে অবস্থান ১৩৫ তম আর জনপ্রতি সম্পদ অর্জনে ১৩৯তম। চাল উৎপাদনে ৪র্থ হলেও ক্ষুধা নির্মূলে ৭৬ তম। এত সব পরেও আমদের প্রাপ্তি কোন অংশে কম নয়। তবে ৫৪তম দেশে হিসেবে ভ্যাকসিন দিয়েছে সরকার। রোগ ব্যাধির উপর নিয়ন্ত্রন প্রতিষ্ঠা করে মানুষের গড় আয়ু আরো বেড়েছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারীর পদাচারণা বৃদ্ধি পেয়েছে। সাক্ষরতার হার বেড়েছে, কমেছে দরিদ্রতা। নির্বাহী বিভাগ থেকে বিচার বিভাগ পৃথকীকরণ করা হয়েছে। স্বাধীনতা বিরোধীদের ফাঁসি দিয়ে জাতিকে কলঙ্ক মোচন করা হয়েছে। স্বাধীনতা পরবর্তী কল্পিত তলাবিহীন ঝুঁড়ির দেশ বাংলাদেশ, এখন আঠারো কোটি মানুষের খাদ্য চাহিদা পূরণ করছে। উপরন্তু সাড়ে এগারো লাখ রোহিঙ্গাকে নিয়মিত তিন বেলা খাওয়ানোর পরও খাদ্যে উদ্বৃত্তে পরিণত হয়েছে বাংলাদেশ। নারীর ক্ষমতায়ন, শিক্ষা, বিনামূল্যে শিক্ষার্থীদের বই বিতরণ, মাতৃ ও শিশু মৃত্যু হ্রাস, বন্ধ হয়েছে বিদ্যুতের লুকোচুরি খেলা। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপন, ব্যাংকের রিজার্ভ, রেমিট্যান্স, রপ্তানি আয় প্রবৃদ্ধি আশাজনক অবস্থানে রাখা সম্ভব হয়েছে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার দূরদর্শী, সাহসী এবং প্রাজ্ঞ রাজনৈতিক নেতৃত্বের কারণেই। স্বাধীনতার পর রপ্তানি আয়ের সত্তর ভাগ ছিল পাটের দখলে। বর্তমানে মোট রপ্তানির ৮২ শতাংশই তৈরি পোশাক খাতের দখলে। ৪০ লাখের বেশি শ্রমজীবী এ খাতের পেশায় নিয়োজিত রয়েছে, যার আশি ভাগই নারী শ্রমিক। সেদিন বেশি দূরে নয়, যেদিন বাংলাদেশে আমদানি ব্যয়ের চেয়ে রপ্তানি আয় বেশি হবে। ‘তলাবিহীন ঝুড়ির’ দেশ আখ্যা দিয়ে যারা অপমান-অপদস্থ করেছিল, সেই তাদের কণ্ঠেই এখন বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রশংসা। দারিদ্র্য আর দুর্যোগের বাংলাদেশ এখন উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উত্তরণের পথে। অনেকের জন্য রোল মডেল। ২০৪১ সালে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হওয়া এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।

লেখক: নাজমুল হক, আহবায়ক, স্বপ্নসিঁড়ি, সাতক্ষীরা ০১৭৭২-৮৭৬৭৪৪





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft