আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
শিরোনাম: স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না যশোরের বিভিন্ন ব্যাংকের গ্রাহকরা       ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে নজর দিতে হবে নাস্তায়        যশোরের দু’ নির্বাচন কর্মকর্তাকে প্রত্যাহারের দাবিতে সাংবাদিকদের স্মারকলিপি প্রদান       সাতটি বোমাসহ একজন আটক       রাজারহাটে এমপি নাবিলের পক্ষে কম্বল বিতরণ       মাকে চেতনানাশক খাইয়ে সোনা ও টাকা চুরি        বান্ধবীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় কিশোরকে ছুরিকাঘাত        চট্টগ্রামকে হারাল খুলনা       প্রথম জয় সূর্য সংঘের       বিএনপি-জামায়াত দেশের উন্নয়নে ভীত : তথ্যমন্ত্রী      
আবার করোনার চোখ রাঙানী!
Published : Sunday, 9 January, 2022 at 9:39 PM, Count : 131
একলোকের হাটের ব্যারাম। যায় যায় অবস্থা। তারে হাসপাতালে নিয়ায়েছে বাড়ির লোকজন। ডাক্তার ভাবলক্ষন দেইকে কলেন, টেস পাতি করারও সুমায় নেই। এক্কনি তারে হাতাসিং কইরে অপারেশন টেবিলি তোল। লোকটার হাটের অপারেশন শুরু হবে। ডাক্তাররা যন্তরপাতিতি শান দেচ্চেন। রুগি ভয়তে অজ্ঞান হওয়ার জুগাড়। ঘাড় ঘুরোয়ে চারপাশ তাগায় তাগায় দেকচেন ডানি বায় কিডা কনে আচে। ডাক্তার নার্স এরপর হটাস তার চোকি পড়লো আনকা একজন দাড়ায় আচে। হটাস মনে পইড়লো এইডে যমদূত নাতো। তার কি সের পুইরে গেলো। আস্তের কইরে কলেন, আমার কি আয়ু শেষ হইয়ে গেচে, আমি কি আজই মইরে যাচ্চি? আনকা লোকটা তার দিকি তাগায় কলে, না আপনি একনো পচিশ বচর বাচপেন। এই কতা মাতার মদ্দি ঘুরপাক খাতি খাতি তার অপারেশন শেষ।
দেকতি দেকতি লোকটা খড়খড়ে হইয়ে উটলো। তকন তার অপারেশনের আগের কতা মনে পইড়ে গ্যালো। একনো যকন তার পচিশ বচর হায়াত আচে তালি এট্টু যুইত কইরেই বাচি। মাড়িতি যে কয়ডা দাত পইড়ে গিলো তা বান্দালেন। মাতার চুল কলপ কইরে কালো কুচকুচে কল্লেন। ব্যাম কইরে শরীল চান্ডা কত্তি লাগলেন। জুয়ান ছাবালের মতো পুষাক আশাক পইরে ঘুত্তি বাইরোলেন। কমবেশী স¹লির মুকি মাক্স। শুধু সেই বিটাই মাক্স পরেনা, মরবেনা বিলে ওভার শিউর। একদিন রাস্তা পার হইয়ে ওপার যাতি যাইয়ে হটাস উল্টোদিকতে আসা গাড়িতে ঢ্যাক্কা খাইয়ে জাগায় খ্যায় হইয়ে গেলেন।
মরার পর যমদূতির সাতে সেই লোকের দেকা হতিই লোকটা কলেন, আপনি আমার সাতে ইরাম ঢপ দেলেন কিয়েত্তি। কয়দিন আগে কলেন আমার পচিশ বছর আয়ু আছে তালি গাড়ি ঢ্যাক্কায় মল্লাম ক্যান? যমদূত কলেন কি করবো কও। যারে আনতি গিলাম তার মুকি মাক্স বান্দা বিলে চিনে উটতি পারিনি। খালি হাতে তো ফিত্তি পারিনে। তাই মুখ খালি থাকায় চিনা লোকরেই আনতি হইলো।
গল্পডা মনে পইড়ে গেলো সুমকি আবার করোনার চোখ রাঙানী। শুনতিচি আবার বিধি নিষেদ আসপো আসপো কইত্তেচে। তাই বাচতি হলি মুকি মাক্স বান্দা ছাড়া যমের চোখ ফাকি দিয়ার আর কোন উপায় দেকতিচিনে।
ইতি-
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft