অর্থকড়ি
শিরোনাম: যশোরের ৪ অফিসার পুরস্কৃত       ট্রেনের ভাড়াও বাড়ানো হতে পারে : রেলমন্ত্রী       গম-ভুট্টা চাষিরা কম সুদে পাবেন ১ হাজার কোটি টাকার ঋণ       ৩৮ দিন পর করোনায় মৃত্যু শূন্য দিনে দেখলো দেশ       আমদানি পণ্যের ট্রাকে মিলল ফেনসিডিল-ওষুধ        শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার পথে গাছে ধাক্কা খেয়ে বাইকার নিহত       মাছে রং মেশানোর অপরাধে ২ ব্যবসায়ীকে জরিমানা       বাংলাদেশকে জিডিআইতে যুক্ত হতে প্রস্তাব দিয়েছে চীন       তাজিয়া মিছিলে বর্শা-বল্লম-তরবারি নয়, আতশবাজি নিষিদ্ধ       হজে গিয়ে ভিক্ষাবৃত্তি করা সেই মতিয়ারের জামিন      
ভরা মৌসুমেও কমছে না চালের দাম, ক্ষুব্ধ ক্রেতা
কাগজ সংবাদ
Published : Friday, 24 June, 2022 at 9:31 PM, Count : 87
ভরা মৌসুমেও কমছে না চালের দাম, ক্ষুব্ধ ক্রেতাভরা মৌসুমে পর্যাপ্ত সরবরাহ। তারপরও যশোরের বাজারে কমছে না চালের দাম। কেবল চালের দাম না, নতুন করে বাড়ছে কাঁচামরিচের ঝাঁঝও। তবে, কিছুটা কমেছে মশলা ও মুরগির দাম।
নিত্যপণ্যর দাম নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অস্বস্তিতে ক্রেতারা। ১০ জুন থেকে ১৬ জুন পর্যন্ত এক সপ্তাহ দাম খানিকটা কম থাকার পরে আবারও বেড়েছে চালের দাম। ১৭জুন থেকে বর্ধিত দামে চাল বিক্রি হয়। এরপর থেকে যশোরের বাজারে চালের দাম আর কমেনি।
শুক্রবার শহরের বিভিন্ন খুচরা বাজারে প্রতি কেজি স্বর্ণা চাল বিক্রি হয় ৪৪ থেকে ৪৬ টাকায়। আঠাশ ও কাজললতা ৫৪ টাকা। মিনিকেট ৬২ থেকে ৬৪ টাকায় বিক্রি হয়। বাসমতি ৭০ টাকা কেজি। নাজিরশাইল বিক্রি হয় ৮০ টাকায়। এ দাম এখনো অপরিবর্তিত রয়েছে।
ক্রেতা আলেয়া ফেরদৌসী বলেন, একইসাথে সব ধরনের নিত্যপণ্যের দাম এভাবে বেড়ে যাওয়ার ঘটনা এর আগে কখনো ঘটেনি। আরেক ক্রেতা শোয়েব মাহমুদ বলেন, ভরা মৌসুমেও চালের দাম কমেনি। এর আগে এমন কখনো হয়নি। কী হচ্ছে বুঝলাম না। যশোর বড় বাজারের চালের খুচরা বিক্রেতা তপন পাল বলেন, দাম কমছে না বলেই চালের বেচাকেনা আগের চেয়ে খানিকটা কমে গেছে। ক্রেতারা চাল কম কিনছেন।   
অন্যদিকে আবারো বেড়েছে কাঁচামরিচের দাম। গত সপ্তাহে ৪০টাকা কেজিতে বিক্রি হলেও এ সপ্তাহে বিক্রি হচ্ছে ৬০টাকায়। কমেনি আলুর দামও। আলু বিক্রি হচ্ছে ২৪ থেকে ২৫ টাকা কেজিতে। প্রতি কেজি পটল, ঢেঁড়স ও মিষ্টি কুমড়া বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা দরে। বেড়েছে বেগুনের দাম। এ সপ্তাহে বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা থেকে ৭০ টাকা কেজিতে। যা গত সপ্তাহে বিক্রি হয় ৫০ টাকায়। করলা ৪০, উচ্ছে ৬০, কচুরমুখি ৪০, কাঁচকলা ৩৫ থেকে ৪০, চাল কুমড়া প্রতি পিচ ৩০ ও লাউ প্রতি পিচ ৪০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।
মশলা বাজারে খানিকটা কমেছে জিরার দাম। খুচরা বাজারে প্রতি কেজি জিরা বিক্রি হচ্ছে চারশ’ ৩০ টাকায়। যা গত সপ্তাহে চারশ’ ৪০টাকা কেজিতে বিক্রি হয়। কমেছে ধনিয়ার দামও। এ সপ্তাহে দারুচিনি বিক্রি হচ্ছে চারশ’ ১০ থেকে চারশ’ ২০ টাকা কেজিতে। যা গত সপ্তাহে বিক্রি হয় চারশ’ ৪০ টাকায়। এ সপ্তাহে লবঙ্গ বিক্রি হচ্ছে এক হাজার একশ’ টাকা কেজিতে। যা গত সপ্তাহে বিক্রি হয় এক হাজার চারশ’ টাকায়। এলাচ বিক্রি হচ্ছে দু’ হাজার চারশ’ থেকে দুই হাজার পাঁচশ’ টাকা কেজিতে। পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৪৫ টাকা কেজিতে। রসুনের দাম একশ’ থেকে একশ’ ৬০ টাকা কেজি দরে।
কেজিতে দশ টাকা কমে এ সপ্তাহে ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে একশ’ ৫০ টাকায়। সোনালি মুরগি বিক্রি হচ্ছে দুশ’ ৬০ টাকা কেজিতে। গত সপ্তাহে লেয়ার মুরগী তিনশ’ টাকায় বিক্রি হলেও এ সপ্তাহে বিক্রি হচ্ছে দুশ’৮০ টাকায়। কমেনি দেশি মুরগির দাম। বিক্রি হচ্ছে পাঁচশ’ থেকে পাঁচশ’ ৫০ টাকায়। খানিকটা কমেছে খাসির মাংসের দাম। গত সপ্তাহে নয়শ’ টাকা কেজিতে বিক্রি হলেও এ সপ্তাহে বিক্রি হচ্ছে আটশ’ থেকে আটশ’ ৫০ টাকায়। গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে সেই সাড়ে ছয়শ’ টাকায়।  
অন্যদিকে খানিকটা কম দামে বিক্রি হচ্ছে ইলিশ মাছ। এ সপ্তাহে কেজিতে দুইশ’ থেকে তিনশ’ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে। এ সপ্তাহে ছোট ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে তিনশ’ টাকা থেকে চারশ’ টাকায়। মাঝারি ইলিশ বিক্রি হচ্ছে সাতশ’ টাকা থেকে আটশ’ টাকায়। বড় ইলিশ বিক্রি হচ্ছে এক হাজার টাকা থেকে এক হাজার ছয়শ’ টাকা কেজিতে। অন্যদিকে খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে দুইশ’ ১২টাকা কেজি দরে। প্যাকেটজাত সয়াবিন দুইশ’ পাঁচ টাকা লিটার। খোলা আটা ৪২টাকা কেজি। প্যাকেট আটা ৫০ টাকা। লবন ৩৫ টাকা কেজি। চিনি মান অনুযায়ী ৮২ টাকা থেকে ৮৮টাকা। মসুরের ডাল বড় দানা একশ’ ১০টাকা, ছোট দানা একশ’৩৫টাকা। মুগের ডাল খানিকটা কমে এ সপ্তাহে বিক্রি হচ্ছে একশ’ ২০টাকা কেজিতে। যা গত সপ্তাহে বিক্রি হয় একশ’৩০ টাকা কেজি দরে। বুটের ডাল ৬৫টাকা। ছোলার ডাল ৭৫ টাকা থেকে ৮০টাকা কেজি।  




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft