শিরোনাম: ঝাঁপায় চার গরুচোর আটকে গণধোলাই        নারিকেলবাড়িয়ার সবচেয়ে বেশি বয়সী মানুষের মৃত্যু       নারী ও শিশু উন্নয়নে মণিরামপুরে তথ্য অফিসের কর্মশালা (ভিডিও)       পৌনে দু’শ’ কোটি টাকা বেশি রাজস্ব ও সোয়া দু’কোটি টাকা জরিমানা আদায়       আগামী দিনের তৃতীয় অর্থনৈতিক করিডোর হচ্ছে যশোর: এমপি নাবিল       নাভারণে শিশু খাদ্যসহ একজন আটক       যশোরে দুর্গাপূজা উপলক্ষে সরকারি অনুদান প্রদান       যশোরে এহসান এস বাংলাদেশের বিরুদ্ধে এবার একদিনে আট মামলা       পোস্ট অফিসপাড়ার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুর রহমানের পিতার মৃত্যু       শঙ্কামুক্ত নীরা আছেন বাড়িতে      
যশোরে মারা যাওয়া এক নারীর তাকানো নিয়ে চাঞ্চল্য!
কাগজ সংবাদ
Published : Wednesday, 30 September, 2020 at 12:28 AM
যশোরে মারা যাওয়া এক নারীর
তাকানো নিয়ে চাঞ্চল্য!যশোরে মারা যাওয়া এক নারীর তাকানো নিয়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে! ওই নারীকে দেখার জন্যে মঙ্গলবার রাতে শ’শ’ মানুষ ভিড় করে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। মুহূর্তের মধ্যে খবরটি গোটা শহরে ছড়িয়ে পড়ে। এমনকি শহর ছাড়িয়ে পৌঁছে যায় শহরতলিতেও। দীর্ঘ রাতে বিভিন্ন উপজেলা থেকেও মোবাইল ফোনের মাধ্যমে চাঞ্চল্যকর এ বিষয়টি সম্পর্কে গ্রামের কাগজের কাছে জানতে চান উৎসুক অনেকেই।
যশোর শহরের রেলগেট পশ্চিমপাড়ার রানার স্ত্রী বৃষ্টি (২৪)। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাকে ডেলিভারি করাতে একটি বেসরকারি স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানে নেওয়া হয়। রাতে সেখানে তিনি একটি ছেলে সন্তানের জন্ম দেন। এরপর সিজার করা একজন নারী ডাক্তার অপারেশন থিয়েটার থেকে বের হয়ে প্রসূতি বৃষ্টি মারা গেছেন বলে ঘোষণা দেন। সেই মোতাবেক হাসপাতাল থেকে মৃত সনদ প্রদানের মাধ্যমে ছাড়পত্র দেওয়া হয়। এ নিয়ে ওই হাসপাতালের সামনে হট্টগোল করে মৃত ওই নারীর স্বজনরা। তাদের অভিযোগ ভুল চিকিৎসায় মারা গেছেন বৃষ্টি। হট্টগোলের এক পর্যায়ে গণমাধ্যম কর্মী ও পুলিশ হাজির হয় সেখানে।
স্বজনরা হট্টগোল শেষে লাশ নিয়ে বাড়ি চলে যায়। প্রস্তুতি নেয় দাফনের। সেই অনুযায়ী, গোসল করাতে নেওয়া হয়। মৃত বৃষ্টির স্বামী রানার দাবি, গোসল করাতে নিয়ে যখন তার গায়ে পানি দেওয়া হচ্ছিল তখন ওই নারী চোখ মেলে তাকান! হাত দিয়ে পানি ঠেকান! তবে, কোনো কথা বলতে পারেননি। এ ঘটনার পরপরই স্বজন ও প্রতিবেশিরা একটি অ্যাম্বুলেন্স ডেকে তাকে দ্রুত মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়। তবে, হাসপাতালে নেওয়ার পরপরই জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার আহম্মেদ তারেক শামস বৃষ্টিকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি সাংবাদিকদের জানান, হাসপাতালে আনার আগেই ওই নারী মারা যান। মারা যাওয়া কোনো মানুষ ফের বাঁচতে পারেন না বলে জানান এই চিকিৎসক। তিনি বলেন, অনেক সময় মৃত ব্যক্তির শিরায় টান পড়তে পারে। তখন অনেকেই নড়াচড়া করছেন বলে মনে করেন।
এদিকে, মরা মানুষ জীবিত হয়েছে এমন খবরে শ’শ’ উৎসুক মানুষ তাৎক্ষণিকভাবে হাসপাতালে ভিড় করে। তারা মৃত বৃষ্টিকে এক নজর দেখার জন্যে হুমড়ি খেয়ে পড়ে। অল্প সময়ের মধ্যে লোকে লোকারণ্য হয়ে যায় যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।
অপরদিকে, চোখ মেলে তাকানোর পর অনেকটা আশায় বুক বাধে রানার পরিবার। স্বজন হারানোর বেদনার মধ্যে কিছুটা হলেও আনন্দের কান্না করেন তারা। যাতে বেঁচে ওঠেন সেই দোয়া করেন উপস্থিত লোকজন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মারা-ই গেলেন বৃষ্টি।
এ ঘটনায় বিস্তারিত জানতে রাতেই মাঠে নেমেছে কয়েকটি গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা। তারা যে হাসপাতালে সিজার হয় সেই হাসপাতালসহ অন্যান্য জায়গায় কথা বলেন। নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা করেন আসল ঘটনা সম্পর্কে।  





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft