শিরোনাম: বাসায় কাজের অনুমতি, অতিরিক্ত ১০০০ ডলার দেবে ফেসবুক       খুলনায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনা রোগীর মৃত্যু       বেনাপোল সীমান্ত থেকে ৫১ মোবাইলসহ আটক ১       ভারত সীমান্ত ঘেঁষে হেলিপ্যাড বানাচ্ছে নেপাল       বঙ্গমাতা নীরবে বাঙালি জাতির জন্য কাজ করে গেছেন : তাপস       মারা গেলেন সাংবাদিক ইকরাম চৌধুরী       লাদাখে নতুন করে ভারত-চীনের উত্তেজনা       আজ বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী        রেণু থেকে বঙ্গমাতা       ভারতে করোনায় একদিনে ৯৩৩ মৃত্যু      
সংঘর্ষের পর দিল্লির ‘রক্ষাকর্তা’ বিচারপতিকেই মাঝরাতে বদলি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
Published : Thursday, 27 February, 2020 at 7:58 PM
সংঘর্ষের পর দিল্লির ‘রক্ষাকর্তা’ বিচারপতিকেই মাঝরাতে বদলিসংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে সংঘর্ষের কারণে ঘরছাড়া মানুষের জন্য উপযুক্ত আশ্রয়ের বন্দোবস্ত করার নির্দেশ দিয়েছিলেন দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি এস মুরলীধর। বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) মাঝ রাতে বদলি করা হয়েছে তাকে। একইসঙ্গে বদলি করা হয়েছে দিল্লির পাঁচ আইপিএস অফিসারকেও।
বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম থেকে এ তথ্য জানা যায়।
খবরে বলা হয়, দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি এস মুরলীধরকে গত সপ্তাহেই পঞ্জাব-হরিয়ানা হাইকোর্টে বদলির সুপারিশ করেছিল সুপ্রিম কোর্টের কলেজিয়াম। এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে কর্মবিরতি পালন করেন দিল্লি হাইকোর্টের আইনজীবীরা। মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) মাঝরাত থেকে বিচারপতি মুরলীধরের ভূমিকা দেখার পরে ওই আইনজীবীরা বলছিলেন, মুরলীধর দিল্লির মানুষের ‘রক্ষাকর্তা’ হয়ে উঠলেন।
কিন্তু কলেজিয়ামের সুপারিশ মেনে বুধবার রাতেই বিচারপতি মুরলীধরকে বদলি করে দিলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। বুধবার মাঝ রাতে এই সংক্রান্ত সরকারি বিজ্ঞপ্তি জারি হয়। বুধবার রাতে বদলি করা হয়েছে দিল্লির পাঁচ আইপিএস অফিসারকেও।
উত্তর-পূর্ব দিল্লির মুস্তাফাবাদে সংঘর্ষে আহতরা হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। তাদের এলাকার বাইরে এনে হাসপাতালে ভর্তি করা যাচ্ছিল  না। মিলছিল না পুলিশের সাহায্যও। তাই চিকিৎসক ও মানবাধিকার কর্মীরা মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার সময় বিচারপতি মুরলীধরের বাড়িতে যান। তখন বিচারপতি তাদের কথা শোনেন এবং রাত পৌনে ২টার সময় দিল্লি পুলিশকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন। এসময় তিনি বলেন, ‘এটা মানুষের কাছে পৌঁছে ভরসা তৈরির সময়।’
এসময় তিনি সংঘর্ষের জেরে ঘরছাড়া মানুষের জন্য উপযুক্ত আশ্রয়ের বন্দোবস্ত করারও নির্দেশ দিয়েছিলেন।
এর আগেও ২০১৮-র ডিসেম্বর ও ২০১৯-এর জানুয়ারিতে দিল্লি হাইকোর্ট থেকে বিচারপতি মুরলীধরের বদলির প্রসঙ্গ উঠেছিল। দু’বারই রাজি হয়নি কলেজিয়াম।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft