gramerkagoj
রবিবার ● ১৪ এপ্রিল ২০২৪ ১ বৈশাখ ১৪৩১
gramerkagoj
নানা আয়োজনে যশোরে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপিত
প্রকাশ : শুক্রবার, ৮ মার্চ , ২০২৪, ০৮:৩৬:০০ পিএম , আপডেট : রবিবার, ১৪ এপ্রিল , ২০২৪, ০৩:৪১:৪৩ পিএম
কাগজ সংবাদ:
GK_2024-03-08_65eb238e52a85.jpg

‘নারীর সমঅধিকার, সমসুযোগ এগিয়ে নিতে হোক বিনিয়োগ’ এ প্রতিপাদ্যে যশোরে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে শুক্রবার যশোর জেলা প্রশাসন ও জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উদ্যোগে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সকালে কালেক্টরেট চত্বর থেকে প্রধান অতিথি হিসেবে র‌্যালির উদ্বোধন করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক রফিকুল হাসান।
এরপর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। স্বাগত বক্তব্য দেন জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আনিসুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবীর, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শিক্ষা ও আইসিটি খালেদা খাতুন রেখা, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা সাধন দাস, বাঁচতে শেখার প্রতিষ্ঠাতা অ্যাঞ্জেলা গোমেজ, জয়তী সোসাইটির পরিচালক অর্চনা বিশ্বাস, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি লাইজুজামান। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন গ্রামের কাগজের সোশ্যাল মিডিয়া এডিটর স্বপ্না দেবনাথ, জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের প্রশিক্ষনার্থী পাপিয়া খাতুন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের কর্মী ইসমাত আরা এশা।
সভায় বক্তারা বলেন, প্রতিপাদ্যের মতোই নারীর প্রতি সমঅধিকার প্রথমেই নিশ্চিত করতে হবে পরিবার থেকে। দেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে, যার পেছনে নারীর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। নারীকে এগিয়ে নিতে পুরুষ নারী উভয়ের সহযোগী মানসিকতা নিয়ে এগোতে হবে। বক্তরা আরও বলেন, সমঅধিকার অর্জন করতে হলে নারীর নিজেকে আগে যোগ্য করে তুলতে হবে। পরিবার থেকে মানসিকতার উন্নয়ন ঘটাতে কাজ করতে হবে। বদলাতে হবে দৃষ্টিভঙ্গি। তবেই নারীর উন্নয়ন ঘটবে।
এদিকে, আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে সাকমিড এবং দৈনিক গ্রামের কাগজের উদ্যোগে র‌্যালি ও গণস্বাক্ষরতা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। পত্রিকা দপ্তরের সামনে থেকে র‌্যালিটি শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে কালেক্টরেট চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। এরপর কালেক্টরেট চত্বরে গণস্বাক্ষরতা কর্মসূচিতে অংশ নেন সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। এছাড়া আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে র‌্যালিতে অংশ নেয় বাঁচতে শেখা, জয়তী সোসাইটি, সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) টিআইবি, ওয়াইডাব্লিউসিএসহ যশোরের বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন।
আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে মহিলা পরিষদ যশোরের উদ্যোগে শহীদ মিনারে আলোচনা সভা ও বাউল গানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি আফরোজা শিরীন। আলোচনা করেন কেন্দ্রীয় সদস্য ও জেলা কমিটির সাবেক সভাপতি হাবিবা শেফা, সাধারণ সম্পাদক তন্দ্রা ভট্টাচার্য্য, আফরোজা বেগম, হামিদা বেগম, নাসিমা বানু লিলি, রোজিনা রহমান, সায়েদা বানু শিল্পী, উম্মে মাকসুদা মাসু, নাজমা পারভীন হিরন, খুরশিদ জাহান খান, রুমা পারভীন, টিআইবি যশোরের সভাপতি অধ্যক্ষ শাহিন ইকবাল, জেলা ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক মাজবুবুর রহমান মজনু, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাহমুদ হাসান বুলু, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট জেলা সাধারণ সম্পাদক সানোয়ার আলম খান দুলু, উদীচীর সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুুর রহমান খান বিপ্লব, সাংবাদিক ফারাজী আহমেদ সাঈদ বুলবুল, মহিলা পরিষদ সদস্য তহমিনা বিশ্বাস। উপস্থিত ছিলেন মহিলা পরিষদের অন্যান্য কর্মী ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা। শেষে বাউল গান পরিবেশন করেন পরিতোষ বাউল ও তার দল। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মহিলা পরিষদের লিগ্যাল এইড সম্পাদক অ্যাডভোকেট কামরুন্নাহার কনা।
আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে জাতীয় মহিলা সংস্থা যশোরের উদ্যোগে নিজস্ব কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আলোচনা করেন সংস্থার সদস্য অ্যাডভোকেট জেসমিন আক্তার, মাজেদা পারভীনসহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ। যশোর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শহরের কাঁঠালতলায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা করেন সংগঠনের সহ-সভাপতি সেলিনা বানু, মাজেদা পারভীন, যুগ্ম-সম্পাদক নাজমুন নাহার, দপ্তর সম্পাদক ফারিন রহমান রুম্পা।
আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে যশোর জেলা জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের উদ্যোগে শুক্রবার দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও নারীনেত্রীদের সংবর্ধনা দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি রাশিদা রহমান। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির আহবায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগম। অনুষ্ঠানে সংবর্ধনা দেয়া হয় ফেরদৌসী বেগম, মনোয়ারা চৌধুরী, জোবাইদা হক, সালেহা ইসলাম, হাসিনা ইউসুফ, জোসনা আলীম। মরনোত্তর সংবর্ধনা পান চমন আরা বেগম, আঞ্জুমান আরা লিলি হাই, ফয়জুন্নেসা সিদ্দিকী, সালেহা খাতুন কোকোলা, আরিফা বুলবুল, মোর্শেদা ওহাব।
এছাড়া, আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে টিআইবি’র উদ্যোগে বৃহস্পতিবার সদর উপজেলার ফতেপুরে গ্রামীণ নারী সমাবেশ ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রায় ৯০ জন গ্রামীণ নারী অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে ‘‘নারী অধিকার ও দুর্নীতি বিরোধী আন্দোলন একসূত্রে গাঁথা’’ এ প্রতিপাদ্যে টিআইবির ১৩ দফা দাবি উপস্থাপন ও ১৫০ সেট ধারণাপত্র বিলি করা হয়।

আরও খবর

🔝