gramerkagoj
শুক্রবার ● ১৪ জুন ২০২৪ ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
gramerkagoj
কাজে লাগান পেঁয়াজের খোসা
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ মে , ২০২৪, ১১:৪৬:০০ এ এম , আপডেট : রবিবার, ৯ জুন , ২০২৪, ০৯:১৯:৩৩ পিএম
কাগজ ডেস্ক:
GK_2024-05-17_6646e77fd8f64.jpg

পেঁয়াজের খোসা সাধারণত আবর্জনার মধ্যে ফেলে দেয়া হয়। পেঁয়াজের স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে সবারই কম-বেশি জানা থাকলেও এর খোসার পুষ্টিগুণ সম্পর্কে অনেকেই জানেন না। শারীরিক বিভিন্ন সমস্যার সমাধানে কাজ করে পেঁয়াজের খোসায় থাকা পুষ্টি উপাদানসমূহ।
পুষ্টিবিদরা বলছেন, পেঁয়াজের সব গুণই রয়েছে খোসার মধ্যে। তাই পেঁয়াজের বদলে খোসাও খাওয়া যায়। তবে এ খোসা রূপচর্চাতেও ব্যবহার করা যায়। চুলে পেঁয়াজের রস ব্যবহার করেন অনেকেই। পেঁয়াজের খোসা কোন কাজে লাগে এটা কিন্তু সবারই জানা দরকার।
গলা-বুক জ্বালা
অম্বল, গলা-বুক জ্বালার ভয়ে পেঁয়াজ খেতেই পারেন না। পুষ্টিবিদরা বলছেন, সেক্ষেত্রে খাবারে পেঁয়াজের বদলে ব্যবহার করা যেতে পারে পেঁয়াজের খোসা গুঁড়ো বা খোসা ভেজানো পানি। সহজপাচ্য পেঁয়াজের খোসা রান্নায় পেঁয়াজের মতোই স্বাদ আনবে। পাশাপাশি অম্বল, টক ঢেকুরের মতো সমস্যাও নিয়ন্ত্রণে রাখবে।
রূপচর্চা
রূপচর্চায় পেঁয়াজের খোসার জুড়ি নেই। পাকা চুলের কৃত্রিমভাবে রঙ না করে ব্যবহার করতে পারেন পেঁয়াজের খোসা। একটি শুকনো লোহার কড়াইতে পেঁয়াজের খোসাগুলি নিয়ে মধ্যম আঁচে সেঁকতে থাকুন। একেবারে কালো হওয়া পর্যন্ত গরম করুন। ভাজা হয়ে এলে খোসা একেবারে গুঁড়ো করে নিন। এই গুঁড়োর সঙ্গে সামান্য পরিমাণ নারকেল তেল কিংবা অ্যালো ভেরার শাঁস মিশিয়ে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে কলপ।
চুলের বৃদ্ধি
পেঁয়াজের খোসা পানিতে সেদ্ধ করে সেই পানি দিয়ে চুল ধুলে চুলের বৃদ্ধি ঘটে। মাথার খুশকির সমস্যাও দূর হয়। পেঁয়াজ ও খোসা দুটিতেই সালফারের পরিমাণ অনেকটা বেশি। চুলের বৃদ্ধিতে সালফার খুবই উপকারী। তা ছাড়া সপ্তাহে তিন-চার দিন এই পেঁয়াজের খোসা সেদ্ধ পানি দিয়ে চুল ধুলে চুল ঘন ও কালো হয়।
ঘামাচি দূর করতে
অনেক সময় গরমের কারণে হাতে, পায়ে, গলায় ঘামাচি দেখা যায়। সেক্ষেত্রে পেঁয়াজের খোসা সেদ্ধ করে লাগালে এই সমস্যা থেকে অনেকটা মুক্তি পেতে পারেন। পেঁয়াজের খোসা সেদ্ধ পানিতে থাকে এন্টিফাঙ্গাল প্রপার্টি যা ঘামাচি দূর করতে সক্ষম।
ত্বকের শুষ্কতা দূর করে
পেঁয়াজের খোসায় রয়েছে ভিটামিন এ-সহ আরও বেশ কিছু উপাদান, যা দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। এ ছাড়া নিয়মিত পেঁয়াজের খোসা যুক্ত চা খেলে ত্বকের শুষ্কতাও দূর হয়। পেঁয়াজের খোসা ত্বকের নতুন কোষ গঠনে সাহায্য করে।
ওষুধি গুণ
পেঁয়াজের খোসার রয়েছে ওষুধি গুণও। ঋতু পরিবর্তনের সময় অনেকে প্রায়ই সর্দি, কাশি, জ্বরে ভুগে থাকেন। পেঁয়াজের খোসায় প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি পাওয়া যায়। যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। ভাইরাসজনিত সমস্যা এড়াতেও পেঁয়াজের খোসা খুবই কার্যকরী। পেঁয়াজের খোসা মেশানো চা গলা ব্যথার সমস্যাও দূর করে।
কীটনাশক
কীটনাশক হিসেবেও কাজ করে পেঁয়াজের খোসা। অনেক সময়ে ছাদ-বাগানের গাছের মধ্যে পোকা ধরে যায়। এই ধরনের পোকা গাছের পাতাগুলিকে খেয়ে নেয়। ফলে দ্রুত গাছের পাতা শুকিয়ে যায় বা মরে যায়। পেঁয়াজের খোসা গুঁড়ো করে, তার সঙ্গে কিছুটা পানি মিশিয়ে নিন। পোকা লাগা পাতায় স্প্রে করতে পারেন।
চুল কালো করতে
সাদা চুল কালো করতে পেঁয়াজের খোসার ব্যবহার রয়েছে। প্রথমে খোসাগুলো কড়াইয়ে অল্প আগুনে ভেজে নিন। এরপর খোসাগুলো গুঁড়ো করুন। গুঁড়ার সঙ্গে এবার অ্যালোভেরার রস কিংবা ভালো মানের নারিকেল তেল মিশিয়ে নিলেই হলো। এবার চুলে ব্যবহার করুন ইচ্ছামতো। পেঁয়াজ এবং এর খোসায় প্রচুর পরিমাণে সালফার পাওয়া যায়, যা চুলের বৃদ্ধিতে সহায়ক। এছাড়া পেঁয়াজের খোসা থেকে তৈরি পানি নিয়মিত ব্যবহারেও চুল কালো ও ঘন হয়।
চুলকানি সারতে
পেঁয়াজের ঔষধি গুণ রয়েছে। পেঁয়াজের খোসাও গুণে ভরপুর। পেঁয়াজের খোসায় অ্যান্টি-ফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য পাওয়া যায়, যা চুলকানি থেকে মুক্তি দিতে পারে। এজন্য পানিতে পেঁয়াজের খোসা রেখে ভালো করে ফুটিয়ে নিন। এরপর সেই পানি ঠান্ডা করে বোতলে ভরে রাখুন। এই পানি প্রতিদিন ত্বকে লাগান, এতে আক্রান্ত স্থানে চুলকানির সমস্যা থেকে মিলবে মুক্তি।
ব্যথা নিরাময়ে
আপনি যদি পায়ের ব্যথা এবং পেশীর ক্র্যাম্পের সমস্যায় ভুগে থাকেন, তাহলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পেঁয়াজের খোসার চা খেতে পারেন। এ জন্য ১ গ্লাস পানিতে পেঁয়াজের খোসা রেখে ১৫ মিনিট ফুটিয়ে নিন, তারপর পানি ফিল্টার করুন। আপনি চাইলে এ সময় চায়ে মধুও যোগ করতে পারেন। প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে পেঁয়াজের খোসা দিয়ে তৈরি চা খেলে পায়ে ব্যথার সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।
অনিদ্রার সমস্যা
অনিদ্রার সমস্যায় নিয়মিত ঘুমের ওষুধ খেয়ে থাকেন অনেকেই। যা শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর। এক্ষেত্রেও কার্যকরী পেঁয়াজের খোসা। কিছু পেঁয়াজের খোসা নিয়ে সেদ্ধ করুন ১৫ মিনিট। এরপর ছেঁকে পান করুন। ঘুমানোর আগে এ চা নিয়মিত পান করলে অনিদ্রা দূর হবে।
সার হিসেবে
সার হিসেবে দারুণ কাজ করে পেঁয়াজের খোসা। গাছের গোড়ায় সরাসরি ব্যবহার করতে পারেন। অনেক সময় গাছে পোকা ধরার ফলে পাতা মরে যায়। এ সমস্যার সমাধানে পেঁয়াজের খোসা গুঁড়া করে পানিতে মিশিয়ে স্প্রে করলে সুফল পাওয়া যাবে।

আরও খবর

🔝