gramerkagoj
শুক্রবার ● ১৪ জুন ২০২৪ ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
gramerkagoj
মশলায় স্বস্তি ফেরেনি বাজারে আতঙ্ক
প্রকাশ : শুক্রবার, ৭ জুন , ২০২৪, ০৯:৪৩:০০ পিএম
কাগজ সংবাদ:
GK_2024-06-07_66632ae0ca250.jfif

যশোরের বাজারে মশলার দাম চড়া। আদা বিক্রি হচ্ছে রেকর্ড দামে। পেঁয়াজ, রসুন, সবজি, চালসহ অন্যান্য নিত্যপণ্যতেও স্বস্তি নেই।
সাধারণ মানুষের কাছে নিত্যপেণ্যর বাজার মূর্তিমান আতঙ্ক হয়ে উঠেছে। দিন দিন তা আরও বাড়ছে। ডলারের দাম বেড়ে যাওয়ার পর থেকেই যশোরের বাজারে মশলার দাম বেড়ে যায়। যা অপরিবর্তিত রয়েছে। জিরা, এলাচ, লবঙ্গ, গোলমরিচ বিক্রি হচ্ছে বাড়তি দামে। জিরা বিক্রি হচ্ছে এক হাজার থেকে এক হাজার পাঁচশ’ টাকায়। এলাচ বিক্রি হচ্ছে তিন হাজার ৫০০ থেকে চার হাজার টাকা কেজিতে। লবঙ্গ এক হাজার ৬০০ থেকে দুই হাজার ৫০০ টাকা। গোলমরিচ এক হাজার থেকে এক হাজার ৫০০ টাকা কেজি। দারুচিনি ৫০০ থেকে ৭০০ টাকা। পেঁয়াজ, রসুন, আদার দামও ঊর্ধ্বমুখী। আদার দাম অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়েছে। বিক্রি হচ্ছে ৫০০ টাকা কেজিতে। যা গত সপ্তাহে বিক্রি হয় ২৮০ থেকে ৪৫০ টাকা কেজি দরে। স্বস্তি নেই পেঁয়াজেও। বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা কেজি দরে। রসুন বিক্রি হচ্ছে ২৪০ থেকে ২৬০ টাকা কেজিতে।
সবজির বাজারে কাঁচামরিচের ঝাঁঝ কমছে না। বিক্রি হচ্ছে ১৫০ থেকে ১৬০ টাকা কেজিতে। অন্যান্য সবজিও বিক্রি হচ্ছে বাড়তি দামে। পেঁপে বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা কেজিতে। উচ্ছে ৬০ থেকে ১০০ টাকা। কচুরমুখি ১০০ টাকা। কাঁকরোল ৮০ টাকা। বেগুন ৬০ থেকে ৭০ টাকা। ঝিঙ্গে ৫০ টাকা। কাঁচকলা ৫০ টাকা। ফুলকপি ৮০ থেকে ১০০ টাকা। বরবটি, কচুর লতি, চিচিঙ্গা, টমেটো ৬০ টাকা কেজি। গাঁজর ১৪০ টাকা। ধুন্দল, পটল ২০ টাকা। লাউ ৫০ টাকা। ধুন্দল, চালকুমড়া ৪০ টাকা। বাঁধাকপি, এঁচোড়, ঢেড়স, মিষ্টি কুমড়া ৩০ টাকা। আলু বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৫৫ টাকা কেজিতে।
ভরা মৌসুমেও চালে স্বস্তি নেই। চাল বিক্রি হচ্ছে বাড়তি দামে। প্রতি কেজি স্বর্ণা (মোটা) চাল বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৫২ টাকা কেজিতে। মিনিকেট চাল ৬২ থেকে ৬৬টাকা। কাজললতা ৫৬ থেকে ৫৮টাকা। আঠাশ ৫৮ থেকে ৬০ টাকা। বাসমতি ৭৮ থেকে ৮০টাকা। নাজিরশাইল ৮০ থেকে ৮৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
মাংসের বাজারে কিছুটা কমেছে ব্রয়লার মুরগির দাম। বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকা কেজিতে। যা গত সপ্তাহে বিক্রি হয় ২১০ থেকে ২২০ টাকা কেজিতে। সোনালী মুরগি বিক্রি হচ্ছে ৩৩০ টাকা কেজিতে। লেয়ার মুরগি ৩৫০ টাকা। দেশি মুরগি ৬০০ টাকা কেজি। গরুর মাংস ৭৫০ টাকা। খাসির মাংস এক হাজার ৫০ টাকা থেকে এক হাজার একশ’ টাকা কেজি। মাছের বাজারে ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে ৬০০ থেকে দুই হাজার ৫০০ টাকা কেজিতে। ডিমের দাম অপরিবর্তিত। ডিম বিক্রি হচ্ছে ৪৮ টাকা হালিতে। সোনালী মুরগির ডিম ৫৬ টাকা। দেশি মুরগির ডিম ৬০ টাকা। হাঁসের ডিম ৭২ টাকা। কোয়েল পাখির ডিম ১২ টাকা। ১২টি ডিমের বক্স ১৬০ টাকা।
মুদি বাজারে প্রতি কেজি মুগ ডাল বিক্রি হচ্ছে ১৫০ থেকে ১৬০ টাকা কেজিতে। মসুরের ডাল ১১০ থেকে ১৪৫ টাকা। ৫ টাকা বেড়ে ছোলার ডাল বিক্রি হচ্ছে ১১৫ টাকা কেজিতে। বুটের ডাল ৭৫ থেকে ৮০ টাকা। খোলা আটা ৪০ থেকে ৪২ টাকা। প্যাকেট আটা ৫০ থেকে ৫২ টাকা। চিনি ১৩০ থেকে ১৪৫ টাকা কেজি। খোলা সয়াবিন তেল ১৬৫ টাকা কেজি। বোতলজাত সয়াবিন তেল ১৬৭ টাকা। লবণ ৪০ টাকা।

আরও খবর

🔝