দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
শিরোনাম: হাসপাতালে স্বেচ্ছাসেবক লেবাসধারীদের বিরুদ্ধে কঠোর হুশিয়ারি প্রতিমন্ত্রীর       যমেক হাসপাতালে আইসিইউ উদ্বোধন        আ’লীগ নেতা কাজী বর্ণ মানবতা ভ্যানের ২১ দিনে ৮ হাজার প্যাকেট খাবার বিতরণ       এমপি নাবিলের পক্ষে ঈদ উপহার ও ইফতারি বিতরণ       শিক্ষা জাতীয়করণের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি       গঠণতন্ত্র সংশোধনের সিদ্ধান্ত, নির্বাচন ২৬ জুন       দেড় হাজার পিস ইয়াবাসহ ৪ কারবারী আটক        সংবাদপত্র হকার্স ইউনিয়নের উৎসব ভাতা প্রদান সোমবার       ভারত থেকে বিপজ্জনক বার্তা পাওয়া যাচ্ছে : কাদের       খাদ্যশস্য সংগ্রহে ধানকে প্রাধান্য দিতে হবে : খাদ্যমন্ত্রী      
বেপরোয়াদের সাথে পেরে উঠা যাচ্ছে না! (ভিডিও)
ফয়সল ইসলাম
Published : Tuesday, 20 April, 2021 at 10:27 PM, Update: 21.04.2021 1:25:40 AM, Count : 397
বেপরোয়াদের সাথে পেরে উঠা যাচ্ছে না! (ভিডিও)যশোরে করোনার সংক্রমণ কোনোভাবেই কমছে না। কঠোর লকডাউনেও স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে মানুষের অবাধ চলাফেরা এবং জনসমাগম সৃষ্টির কারণে অবস্থা দিন দিন ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে। স্বাস্থ্যবিধি মানতে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা নিরন্তর চেষ্টা করলেও বেপরোয়া মানুষের সাথে পেরে উঠছেন না। ফলে করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়ছে। মঙ্গলবারও যশোরে নতুন ৪৩ জনের করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব মিলেছে। এদিন করোনা সংক্রমিত ২২ জন যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এছাড়াও সংক্রমিত সন্দেহে চিকিৎসা নিচ্ছেন আরও ১৪ জন।
গত ৭ ফেব্রুয়ারি দেশব্যাপী করোনা প্রতিরোধী ভ্যাকসিন প্রদান গণমানুষের জন্য উন্মুক্ত হওয়ার পর যশোরে ব্যাপক সাড়া মেলে। অধিক সংক্রমণের কারণে কঠোর লকডাউন চলা সত্বেও নিজে ও পরিবারকে সুরক্ষিত রাখতে মানুষ ছুটছেন ভ্যাকসিন নিতে। ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত যশোর জেলায় প্রথম ডোজের ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন এক লাখ ১৮ হাজার ছয়শ’ ৫৬ জন। ৮ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া দ্বিতীয় ডোজের ভ্যাকসিন গ্রহীতার সংখ্যা ৩১ হাজার একশ’ ৬৮ জন। যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১১টি বুথে চলছে ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম। এতে ২৪ জন সিনিয়র স্টাফ নার্স ও ২০ জন স্বেচ্ছাসেবক কাজ করছেন।
সরেজমিনে দেখা গেছে, উৎসবে অংশ নেয়ার মতো মানুষ কেন্দ্রে আসছেন ভ্যাকসিন গ্রহণের জন্য। এক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি চরমভাবে উপেক্ষা হচ্ছে। শারিরিক দূরত্ব বজায় না রেখে ঠেলাঠেলি ও হুড়োহুড়ি করে ভ্যাকসিন নেয়ার প্রতিযোগিতা করতে দেখা গেছে অনেককে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে দায়িত্বে থাকা পুলিশ সদস্যরা সব কিছু দেখেও নির্বিকার বসে থাকছেন। কেউ খোঁশগল্প আবার কেউ মোবাইল নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। দু’জন ডাক্তার এবং কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবক শ’ শ’ মানুষের ভীড় ঠেকিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন। অভিযোগ রয়েছে ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য স্বাস্থ্যবিধি মানানো কাজে সহযোগিতা করার জন্য আনসার ব্যাটেলিয়ন সদস্যদের নিয়োজিত করতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে চিঠি দেয়া হলেও কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। পুলিশ সদস্যদের নির্লিপ্ততা ও স্বাস্থ্যবিভাগের জনবল সংকটের কারণে ভ্যাকসিন গ্রহীতার ভীড় সামলা কঠিন হয়ে পড়ছে। এতে চরমভাবে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য হয়েছে। ফলে করোনা সংক্রমণের ডিপোতে পরিণত হচ্ছে ভ্যাকসিন প্রদান কেন্দ্রগুলো।
যশোরের সিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীন জানিয়েছেন, করোনা ছোবল থেকে রেহায় পেতে এবং নিজেদের সুরক্ষিত রাখতে স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনো বিকল্প নেই। মহামারির বিরুদ্ধে চলমান যুদ্ধে বিজয় অর্জন করতে হলে বাধ্যতামূলক মাক্স পরিধান করতে হবে। জনসমাগম এড়িয়ে চলতে হবে। কোনো রকম উপসর্গ দেখা দিলেই নমুনা পরীক্ষার জন্য আগ্রহী হতে। সব মিলিয়ে সচেতনতা সৃষ্টি না হলে বিপর্যয় থেকে রক্ষা পাওয়ার কোনো উপায় থাকবে না।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft