সারাদেশ
শিরোনাম: ভারতীয় রেলওয়ের ‘অক্সিজেন এক্সপ্রেস’ বাংলাদেশে        বাগেরহাটে ইজিবাইক দুর্ঘটনা পিকআপের চালক কারাগারে       সম্প্রীতি বাংলাদেশের আয়োজনে অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণ        যশোরে বাকপ্রতিবন্ধি যুবক খুন       নড়াইলে অস্ত্রসহ যুবক গ্রেপ্তার       নড়াইলে দু’মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১       মেয়েলি ঘটনাসহ কয়েকটি কারণে এই খুন! অভিযুক্ত ৮, আটক ৩       করোনা প্রতিরোধে ২১ কোটি টিকার ব্যবস্থা করা হয়েছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী       সংক্রমণ বাড়তে থাকলে ভয়ানক অবস্থা তৈরি হতে পারে : কাদের       ভারত থেকে ২৫০টি ভেন্টিলেটর আসছে       
স্ত্রী-সন্তানসহ ৩ জনকে গুলি করে হত্যা
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি
Published : Monday, 14 June, 2021 at 12:03 AM, Count : 297
স্ত্রী-সন্তানসহ ৩ জনকে গুলি করে হত্যা কুষ্টিয়ায় প্রকাশ্যে স্বামী-সন্তান ও এক যুবককে গুলি করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে সৌমেন নামে এক এএসআই এর বিরুদ্ধে। পুলিশ তাকে আটক করেছে পুলিশ। তবে হত্যার কারণ সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি।
রোববার বেলা ১১টার দিকে শহরের পিটিআই সড়কের কাস্টমস মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত এএসআই খুলনার ফুলতলা থানায় কর্মরত। তাকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করছে।
নিহত তিনজন হলেন আসমা খাতুন ও তার ছয় বছর বয়সী ছেলে রবিন এবং শাকিল নামের এক যুবক। আসমার বাড়ি কুমারখালীর নাতুরিয়া গ্রামে। তবে সন্তানকে নিয়ে তিনি কুষ্টিয়া শহরে বাবার বাড়িতে থাকতেন। শাকিল বিকাশের এজেন্ট।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, বেলা ১১টার দিকে কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের কাস্টমস মোড়ে তিনতলা একটি ভবনের সামনে আসমা তার সন্তানকে নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন। তাদের পাশে শাকিলও ছিলেন। হঠাৎ সেখানে গিয়ে সৌমেন প্রথমে আসমার মাথায় গুলি করেন। এরপর তিনি শাকিলের মাথায় গুলি করেন। ভয়ে শিশু রবিন দৌড়ে পালাতে গেলে তাকে ধরে মাথায় গুলি করা হয়। আশপাশের লোকজন সৌমেনকে ধরতে গেলে তিনি দৌড়ে তিনতলা ভবনের ভেতরে ঢুকে পড়েন। স্থানীয় উত্তেজিত হয়ে ওই ভবন লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যেয়ে গুলিবিদ্ধদের উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আসমাকে মৃত ঘোষণা করেন। অস্ত্রোপচারকক্ষে গুলিবিদ্ধ শাকিল ও শিশু রবিনের মৃত্যু হয়।
কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এসপি) মোস্তাফিজুর রহমান এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন।
কুষ্টিয়া পুলিশের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এএসআই সৌমেন রায় খুলনার ফুলতলা থানায় কর্মরত। ধারণা করা হচ্ছে এএসআই সৌমেনকে দেয়া পিস্তল দিয়ে তিনি হত্যাকাণ্ডের এ ঘটনা ঘটিয়েছেন। ওই পিস্তল জব্দ করা হয়েছে। তবে, ঘটনার সময় তিনি কর্মস্থল থেকে কোনো ছুটি নেননি বলেও জানা গেছে।
কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে আসমার মা হাসিনা খাতুন বলেন, সকালে সৌমেন স্ত্রী-সন্তানকে খুলনায় নিয়ে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন। পরে এ হত্যাকাণ্ডের কথা জানতে পারেন তারা। শাকিল বিষয়ে তার ভাষ্য, তার মেয়ের সঙ্গে শাকিল ফোনে কথা বলতেন।
নিহত আসমার ভাই হাসান জানায়, তার বোনের আগে দুটি বিয়ে হয়েছিল। ভাগনে রবিন বোনের দ্বিতীয় স্বামীর সন্তান। পাঁচ বছর আগে এএসআই সৌমেনের সঙ্গে বোনের বিয়ে হয়।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft