আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
শিরোনাম: স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না যশোরের বিভিন্ন ব্যাংকের গ্রাহকরা       ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে নজর দিতে হবে নাস্তায়        যশোরের দু’ নির্বাচন কর্মকর্তাকে প্রত্যাহারের দাবিতে সাংবাদিকদের স্মারকলিপি প্রদান       সাতটি বোমাসহ একজন আটক       রাজারহাটে এমপি নাবিলের পক্ষে কম্বল বিতরণ       মাকে চেতনানাশক খাইয়ে সোনা ও টাকা চুরি        বান্ধবীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় কিশোরকে ছুরিকাঘাত        চট্টগ্রামকে হারাল খুলনা       প্রথম জয় সূর্য সংঘের       বিএনপি-জামায়াত দেশের উন্নয়নে ভীত : তথ্যমন্ত্রী      
বাটে না পড়লি বুঝা দুস্কর !
Published : Monday, 10 January, 2022 at 9:23 PM, Count : 175
এক বনে ছিল সব পোজাতির জীবজন্তুর বাস। তার মদ্দি শিয়েলরে সগ্গলি পন্ডিত বিলে মাইনতো। একদিন শিয়েল বনের মদ্দি ঘুইত্তেচে। হটাস তার চোখি পইড়লো সিংহ এক ঝোপের আবডালে বইসে সিকারেট ফুইকতেচে। তার বসা আর সিকারেট টানার ভাব দেকলি যে কেউই বুজদি পারবে সিংহডা কোন বিষয়ে ছ্যাক খাইয়েচে। মনের দুক্কু মিটোতি তফাতে বইসে সিকারেট টাইনতেচে। তাই দেইকে শিয়েল আস্তের কইরে সিংহের কাচে যাইয়ে কচ্চে, ম্যা ভাই আপনি সিকারেট খাইয়ে অকালে আয়ুডা কুমাচ্চেন কেন। আমার সাতে আসেন ঘুইরে ঘুইরে বনডা দেকেন। তকন আপনার মনে হবে জগতটা কত সুন্দর আর সেই কারণে বাইচে থাকাডা কত জরুলী!
শিয়েলের এই কতা শুইনে সিংহ মুকিত্তে সিকারেটটা টান মাইরে ফেলায় দিয়ে তার সাতে বন ঘুইরে দেকতি হাটা শুরু কইল্লো। খানিক দূর যাতিই তাগের চোকি পইড়লো হাতি বইসে বইসে ইয়াবা খাচ্চে। শিয়েল তার সুমকি যাইয়েও বিনয় কইরে একই কতা কইয়ে কলে, আমার সাতে আসেন ঘুইরে ঘুইরে বনডা দেকেন। তকন আপনার মনে হবে জগতটা কত সুন্দর, আর সেই কারণে বাইচে থাকাডা কত জরুলী! শিয়েলের সাতে সাতে সিংহের মতো হাতিও হাটা শুরু কইল্লো। খানিকটে দূর যাওয়ার পর তাইগের চোখি পইড়লো কানাচি বইসে বাঘ মদ খাইয়ে টাল হইয়ে রইয়েচে। তাই দেইকে শিয়েল বাঘের কাচে যাইয়ে খুব সুন্দর কইরে বুজোয় সুজোয় কলে, আমার সাতে আসেন ঘুইরে ঘুইরে বনডা দেকেন। তকন আপনার মনে হবে জগতটা কত সুন্দর আর সেই কারণে বাইচে থাকাডা কত জরুলী। এই কতা শুইনেই বাঘ রাঙা চোখ মেইলে শিয়েলের গালে কইষে মাইরেচে এক থাবা। থাবা খাইয়ে শিয়েল ভিরমি খাইয়ে পইড়েচে তফাতে। এই দেইকে সিংহের গেচে মিজাজ খাররা হইয়ে। আইগোয় যাইয়ে কচ্চে, শিয়েল হ্যাতো ভালো কতা কইয়ে ভালো কাজের জন্যি ডাইকলো, আর তুমি তারে মাইল্লে কিয়েত্তি। তাই শুইনে বাঘ কচ্চে, এই শিয়েল হারামজাদা পেত্তেকদিন গাঞ্জা খাইয়ে এইভাবে সাতে সুংখ্যানু ডাইকে নিয়ে সারা বন ঘুরোয় নিয়ে বেড়ায়। এই সেদিন একবার আমারে হ্যারেজ খাওয়ায় দেচে। আইজ আবার আইয়েচে ডাকতি।
আমাগের আশপাশেও ইরাম বহুত জন আচে, মিটেমিটে কতা কইয়ে কাচে পিটি ডাকে। বাটে পড়লি তকন বুজা যায় জ্বালাডা কি!
ইতি-
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft