আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
শিরোনাম: খুলনা বিভাগে ছাড়িয়েছে তিন লাখ        যশোরসহ ১৬ নার্সিং ইনস্টিটিউটকে কলেজ ঘোষণা       প্রতারণা মামলায় এক ব্যবসায়ীর দুই বছরের কারাদন্ড       যমেক হাসপাতালে ডায়াবেটিস পরীক্ষা ফ্রি        বেনাপোলে র‌্যাবের হাতে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক        সাত শর্তে দু’বোনকে প্রবেশনে মুক্তি       যশোরে ডাক্তার ছেলের বিরুদ্ধে অসহায় বৃদ্ধা মায়ের মামলা       ৮ কোটি টাকার সম্পত্তি জবরদখলে রেখেছে সাড়াপোলের বিল্লাল চক্র       জড়িতদের আটক ও শাস্তির দাবিতে ঝাটা মিছিল       নৌকার বিজয় হলে শেখ হাসিনার হাত শক্তিশালী হবে: কেশবপুরে মোজাম্মেল হক       
ফেসবুক নায় ওরেশকাম সাট্টিফেট দেচ্চে!
Published : Monday, 22 February, 2021 at 8:57 PM, Count : 129
ফেসবুক নায় ওরেশকাম সাট্টিফেট দেচ্চে!ফেসবুক আইসে একন পলাপলির দিন নেই কলিই চলে। ভুকসি মাইরেও কিচু করার জো নেই, পেমের মরার মতো ফেসবুকি তা ভাইসে ওটপেই। 
এই নিয়ে আমার এক ভাইপোর সাতে কতা হচ্চিল। তারে কলাম, তুরা সারেদিন এতো ফেসবুক নিয়ে মাইতে থাইকে কি সুক পাইস ক’দিনি। য্যানে যা হবে সব ফেসবুকি ছাড়তি হবে ক্যান! ভাইপো কলে চাচা, তুমি সেকেলেই থাইকে গেলে। ফেসবুকির উপকারিতার কতা কইয়ে শেষ করা যাবে না, কোন এট্টা খবর চোকির পলকে গাবাতি হলি ফেসবুক ছাড়া কোন তরিকা নেই। একন কেউ মল্লিও যতক্ষন তা ফেসবুকি না ছাড়া হচ্চে, ততক্ষন কেউ বিশ্বাসই করবে না সে মইরেচে। তুমাগের আমলে বিয়ে করার সুমায় ফটক তুলারও চল ছিলো না। আর একন বিয়ে কইরে বউর ফটক তুইলি ছবি ছাড়লি ওরেশকাম সাট্টিফেটও দেচ্চে  ফেসবুক। আমি কলাম কচ্চিস কি! দিন কয়েক আগে আমাগের দেশের এক ক্রিকেট খেলোয়াড় খুব ঘটা কইরে বিয়ে কইরেচে। বউর হ্যানো কোন ছবি নেই যা ফেসবুকি ছাড়ি নি। হটাস ছবি দেইকে জানাজানি হইয়ে গেচে সে আরেক বিটার বউ। সেই ঘরে তার এট্টা আট বছর বয়সী মাইয়েও আচে। এই ঘরে আসার আগে আরো দুডো ঘর ঘুইটে আইয়েচে। ফেসবুকি ছবি না দিলি কেউ জানতি পাইত্তো বউডা কার রিকার্ড করা সম্পত্তি, কার নামে হাল দলিল করা, আর হালি কইরে কিডা নামপত্তন কইরে নেলে। আমি তার কতা শুইনে কলাম, কি কচ্চিস এ সব! শুকনো ভিজে কিচু খাইস নি তো? সে কলে চাচা তুমাগের আমলে ছিলো বিটারা গাছিকখানিক বিয়ে কইত্তো। বউতি বউতি সতিন হইতো। একন দিন বদলায় গেচে। একন উল্টো বিটিগের গাছিকখানিক বর হচ্চে। বরে বরে একন সতিন। কিডা যে একন কার সিডা বুজাই দুস্কর। আগে তাও বিয়েশাদির বেলায় চুতা পত্তরে হোক মুকিমুকি বাইন তালাক হোক তাও এট্টু দিতো, একন তাও কাইজে গেচে। যকন যার মনে হচ্চে সে তার সাতে সুংসার কত্তি হাটা দেচ্চে, আগে পাচে কিডা কনে আচে সে সব তাগায় দেকারও টাইম নেই।
ভাইপোর আল্লাদে আটখান হতি দেইকে মনডা খারাপ হইয়ে গ্যালো। সুংসার কি কোন খেলার জাগা। ইচ্চে হলো খেলতি উইলে গিলাম, ইচ্চে হলো না খেলবো না কইয়ে উজোন হাটলাম! ইরাম তাল বায়না চলতি থাকলি সুংসার জিনুসটায়তো খ্যায় হইয়ে যাবে! আলাম কনে, মলাম যে!
ইতি-
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft